দেড় বছর ধরে ইনদওরে ১৬ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল ছ’জনের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছে বছর পঞ্চাশের এক ঠিকাদার, তার ছেলে ও আরও তিন জন। অভিযুক্তদের এক জন নাবালক।

পুলিশ জানতে পেরেছে, গত বছর ওই কিশোরীর মা মারা যান। ছোট বোন, বাবার সঙ্গে থাকত। একটি আবাসনের নিরাপত্তারক্ষী, বাবা কাজে বেরোলেই আসত অভিযুক্ত ঠিকাদার। টাকার বিনিময়ে সে তার ছেলেমেয়েদের দেখাশোনা করার প্রস্তাব দিত মেয়েটিকে। এক সময়ে মেয়েটি রাজিও হয়। কিশোরীর অভিযোগ, ঠিকাদারের বাড়িতে যাতায়াত শুরু হওয়ার পরে তাকে ফোনে অশ্নীল ছবি দেখিয়ে ধর্ষণ করত ওই ব্যক্তি। তার ২৩ বছরের ছেলেও যৌন হেনস্থা করত মেয়েটিকে। কয়েক সপ্তাহ বাদে ঠিকাদারের ভাইপোকে সব জানিয়ে তার কাছে সাহায্য চায় কিশোরী। কিন্তু নাবালক সেই ভাইপোও ধর্ষণ কিশোরীকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। তার সঙ্গে যোগ দেয় আরও তিন প্রতিবেশী যুবক।

লাগাতার অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে শেষমেশ বাবাকে সব খুলে বলে মেয়েটি। খবর পেয়ে পুলিশ ছয় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।