• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘পেটে লাথি মেরে পুলিশ বলল পাকিস্তানে চলে যাও’

Sadaf Jafar
যোগীর পুলিশের বিরুদ্ধে তোপ সদাফ জাফরের। ছবি: টুইটার

লখনউয়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ)-এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানোর সময় গ্রেফতার। ১৯ দিন পর, মঙ্গলবার জামিনে মুক্তি পেয়ে যোগী আদিত্যনাথের পুলিশের বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগ তুললেন অভিনেত্রী তথা সমাজকর্মী সদাফ জাফর

গত ১৯ ডিসেম্বর লখনউয়ের পরিবর্তন চক এলাকায় চলছিল সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ। তা ফেসবুকে লাইভে তুলে ধরছিলেন বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারী সদাফ জাফর। জেল থেকে মুক্তি পাওয়ার পর, সে দিনের ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন সদাফ। জানিয়েছেন, ‘‘পুলিশ আমাকে গালিগালাজ করছিল। আমাকে প্রথমে এক জন মহিলা পুলিশকর্মী চড় মারেন। তার পর মারেন এক পুরুষ অফিসার। ওই পুরুষ অফিসার নিজেকে ইন্সপেক্টর জেনারেল পদমর্যাদার অফিসার বলে দাবি করেছিলেন। তিনিই আমার পেটে লাথি মারেন এবং বলেন পাকিস্তানে চলে যাও।’’

সদাফ জাফরের গ্রেফতারের ঘটনা ঝড় তুলেছিল দেশ জুড়ে। এ দিন তিনি জেলের যে অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেছেন তা শিউরে ওঠার মতো। তাঁর দাবি, ‘‘হজরতগঞ্জ পুলিশ স্টেশনের জেল হেফাজতে থাকাকালীন কেউ আমার সঙ্গে দেখা করতে এলে তাঁকে আটকে রাখা হত। মনে হতো, আমি যেন ব্ল্যাক হোলের মধ্যে রয়েছি।’ সদাফের দাবি, ‘‘জেলের মধ্যে থাকাকালীন এই ঠান্ডাতেও আমাকে কম্বল বা খাবার দেওয়া হয়নি।’’ তাঁর দাবি, বিক্ষোভ দেখানোর ফলে, বহু নিরপরাধ মানুষকে গ্রেফতার করেছে যোগী আদিত্যনাথের পুলিশ।

ভাটপাড়া পুরসভা ফের দখলে নিল তৃণমূল’ আরও পড়ুন

গত সপ্তাহেই জামিন পেয়েছেন সদাফ। তাঁর আইনজীবী হরজৌত সিংহ বলছেন, ‘‘সদাফকে হিংসা ছড়ানোর মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছিল।’’ তাঁর দাবি, সদাফ সম্পর্কে লখনউ পুলিশ আদালতকে জানিয়েছে, ‘‘তাঁর বিরুদ্ধে অগ্নিসংযোগ বা হিংসা ছড়ানোর কোনও প্রমাণ এখনও পর্যন্ত মেলেনি।’’ মামলাতেও অবশ্য প্রতিবাদের রাস্তা থেকে সরতে নারাজ সদাফ জাফর। বলছেন, ‘‘যাঁরা গণতন্ত্রে আস্থা রাখেন তাঁরা যা ঘটছে তার প্রতিবাদ করবেনই। সামনে এখনও লম্বা লড়াই।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন