• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যা করেছ ঠিক করেছ, তোমার জন্য গর্বিত, প্রিয়ঙ্কাকে টুইট রবার্ট বঢরার

robert vadra
রবার্ট বঢরা। ফাইল চিত্র।

Advertisement

প্রিয়ঙ্কা যা করেছেন, ঠিকই করেছেন। তাঁর জন্য গর্ববোধ করছেন তিনি। প্রিয়ঙ্কা গাঁধীকে হেনস্থায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশের তীব্র নিন্দা করে এমনই মন্তব্য করলেন রবার্ট বঢরা। প্রিয়ঙ্কার উদ্দেশে রবিবার টুইট করে বলেন, “তোমার জন্য গর্বিত। যা করেছ সেটা ঠিক। মানুষের প্রয়োজনে তাঁদের পাশে দাঁড়ানো কোনও অপরাধ নয়।”

শনিবার অবসরপ্রাপ্ত আইপিএস অফিসার আর এস দানাপুরীর বা়ড়িতে যাওয়ার সময় লখনউ পুলিশ প্রিয়ঙ্কার পথ আটকায়। শুধু তাই নয়, তাঁকে গলা টিপে ধরে রাস্তায় ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।  

এ প্রসঙ্গে রবার্ট বলেন, “যে ভাবে প্রিয়ঙ্কার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন উত্তরপ্রদেশের মহিলা পুলিশকর্মীরা, তাতে খুবই আশ্চর্য হচ্ছি। এক জন প্রিয়ঙ্কার গলা টিপে ধরেছিলেন। অন্য জন্য তাঁকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেন। তবে তার পরেও প্রিয়ঙ্কা ওই পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন। ওঁর দৃঢ়তার জন্যই এটা সম্ভব হয়েছে।”

 

শনিবার লখনউয়ে কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবসের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। অনুষ্ঠান শেষে সিএএ বিক্ষোভে ধৃত আরএস দানাপুরী ও দলের নেত্রী সাদফ জাফরের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে রওনা হন। কিন্তু মাঝপথেই প্রিয়ঙ্কার কনভয় আটকে দেয় লখনউ পুলিশ। অভিযোগ, তাঁকে ঘিরে ধরেন এক দল মহিলা পুলিশকর্মী। তাঁদের মধ্যেই এক জন কংগ্রেস নেত্রীর গলা টিপে ধরেন বলে অভিযোগ। অন্য জন ধাক্কা মেরে রাস্তায় ফেলে দেন। তার পরেও এক সমর্থকের স্কুটারে চেপে গন্তব্যস্থলে রওনা দেন তিনি। দু’কিলোমিটারের মধ্যেই ফের প্রিয়ঙ্কার পথ আটকায় পুলিশ। পরে বাকি পথ তিনি হেঁটেই যান। গোটা ঘটনার জন্য যোগী সরকারকেই দায়ী করেছেন প্রিয়ঙ্কা। তাঁর অভিযোগ, সরকার ও প্রশাসনের প্রচ্ছন্ন মদতেই তাঁর সঙ্গে এমন দুর্ব্যবহার করা হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন