পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা হামলা চালিয়েছে কাশ্মীরে। প্রতিবাদে পাকিস্তানের সাহিত্য উত্সবে যাওয়া বাতিল করলেন অভিনেতা শাবানা আজমি ও তাঁর স্বামী জাভেদ আখতার। শাবানার বাবা, কইফি আজমি উর্দু সাহিত্যের অন্যতম জনপ্রিয় কবি। এ বছর ১৪ ফেব্রুয়ারি তাঁর জন্মশতবার্ষিকী। সেই উপলক্ষে পাকিস্তানের করাচিতে দু’দিনব্যাপী উত্সবের আয়োজন করেছে করাচি আর্ট কাউন্সিল। তাতে প্রধান অতিথি হিসাবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল শাবানা-জাভেদকে। বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর সে দেশে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা।

শুক্রবার দুপুরে টুইটারে শাবানা লেখেন, ‘কইফি আজমির জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমন্ত্রণ পেয়েছিলাম। তা নিয়ে যথেষ্ট উত্সাহী ছিলাম আমরা। কিন্তু পুলওয়ামায় হামলার জেরে আর যাওয়া সম্ভব হল না। ভেবেচিন্তে সফর বাতিল করেছি।’ করাচি আর্টস কাউন্সিলও তাতে আপত্তি করেনি বলে জানিয়েছেন শাবানা।

কড়া ভাষায় পুলওয়ামা হামলার তীব্র নিন্দাও করেন শাবানা। তিনি বলেন, ‘পুলওয়ামায় হামলার ঘটনায় স্তম্ভিত আমি। সিআরপি কনভয়ের উপর এই হামলার তীব্র নিন্দা করছি। আর কতদিন এই ধরনের ঘৃণ্য হামলার মাসুল গুনতে হবে মানবজাতিকে?’

শাবানা আজমির টুইট।

আরও পড়ুন: ‘প্রতিশোধ চাই’! পাকিস্তান বিরোধী মিছিলে অগ্নিগর্ভ জম্মু, জারি কার্ফু

আরও পড়ুন: কবে, কোথায়, কী ভাবে প্রত্যাঘাত, সিদ্ধান্ত নিক সেনা, পূর্ণ ছাড়পত্র: ঘোষণা মোদীর​

শাবানার স্বামী জাভেদ আখতার বলেন, ‘সিআরপিএফের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্ক আমার। ওদের জন্য গানও লিখেছি। সিআরপিএফ জওয়ানদের সঙ্গে কয়েকবার সাক্ষাতের সুযোগ হয়েছে।তাতে যা দেখেছি, ওদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা বেড়ে গিয়েছে।’

এর আগে, ২০১৬-র সেপ্টেম্বর মাসে কাশ্মীরের উরিতে হামলা চালিয়েছিল পাক মদতপুষ্ট ফিদায়েঁ জঙ্গিরা। সেইসময়েও হামলার তীব্র প্রতিবাদ করতে দেখা গিয়েছিল বলিউডকে। তবে পাকিস্তান নিয়ে দু’রকম অবস্থান নিতে দেখা গিয়েছিল তারকাদের। পাক অভিনেতাদের তাড়ানোয় সমর্থন ছিল এক পক্ষের। আবার হামলার সমালোচনা করলেও পাক অভিনেতাদের উপর নিষেধাজ্ঞা বসানোর বিরোধিতা করেছিল অন্য পক্ষ।

(দেশজোড়া ঘটনার বাছাই করা সেরা বাংলা খবর পেতে পড়ুন আমাদের দেশ বিভাগ।)