আস্ত একটা জাহাজ। আর সেই জাহাজই সামুদ্রিক প্রাণীদের দূষণের হাত থেকে রক্ষা করবে। বাঁচাবে সমুদ্রকে, বাঁচাবে পরিবেশকেও।

এরকমই একটা জাহাজের নকশা তৈরি করেছে বারো বছরের হাজিক কাজি। ‘এরভিস’ নাম দিয়েছে সে জাহাজটির। সে একটি আন্তর্জাতিক সেমিনারে জানিয়েছে, তাঁর নকশা করা এই জাহাজটিই সামুদ্রিক বর্জ্য তুলে নেবে।

হাজিক জানায়, ‘‘আমি বেশ কিছু তথ্যচিত্র দেখেছি এই বিষয়ের উপরে।’’ সামু্দ্রিক প্রাণীদের রক্ষা করতেই হবে, বিপন্ন বন্যপ্রাণের জন্য কিছু একটা করতেই হবে এমনই একটা তাড়না থেকেই এই জাহাজের নকশা তৈরি করেছে সে। সমুদ্রে প্লাস্টিক খেয়ে ফেলছে মাছ। মাছ থেকে দূষণ এসে পড়ছে মানুষের শরীরেও। কারণ বেশ কিছু সামুদ্রিক মাছও মানুষ খায়। ফলে দূষণের পরিমাণ মাছ থেকে মানুষে স্থানান্তরিত হলে আরও বেড়ে যায়।

আরও পড়ুন: ধওয়ন জিতিয়ে ফিরলেন, পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল ভারত​

জাহাজের যে নকশা তৈরি করেছে পুণের এই কিশোর, তাতে জলের সঙ্গে সামু্দ্রিক প্রাণীও যন্ত্রে ধরা পড়ছে তাকে সুস্থ অবস্থায় সমুদ্রে ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থাও রয়েছে। কারণ এতে দূষণকে পাঁচ ভাগে ভাগ করার বিশেষ ব্যবস্থা থাকছে।

আরও পড়ুন: দ্রুততম ১০০ উইকেট শিকারের তালিকায় প্রথম দশে শামি, বাকিরা কারা?

জাহাজের মধ্যে একটা সেন্সর লাগানো থাকবে, সেই সেন্সর প্লাস্টিক বর্জ্যকে আলাদা করতে পারবে। অন্য সেন্সরগুলি সামুদ্রিক প্রাণী শনাক্ত করে ফিরিয়ে দেবে সমুদ্রেই। নয় বছর বয়স থেকে এই জাহাজের নকশা নিয়ে কাজ করছে কাজি।

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)