মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে, আমাদের বাঁচান— নিজেদের রক্ত দিয়ে চিঠি লিখে এ ভাবেই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে সাহায্যের আর্জি জানালেন দুই তরুণী। শুধু তাই নয়, সঠিক বিচার না পেলে পরিবারসমেত স্বেচ্ছামৃত্যুর দাবিও জানিয়েছেন দুই তরুণী। পঞ্জাবের মোগা শহরের ঘটনা।

তরুণীদের দাবি, তাঁদের বিরুদ্ধে প্রতারণার দুটি মিথ্যা মামলা রুজু করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে সঠিক তদন্তের জন্য একাধিক বার পুলিশকে জানিয়েছেন তাঁরা। অভিযোগ, পুলিশ তাঁদের কোনও কথাই শুনতে চায়নি। শেষমেশ বাধ্য হয়ে রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হয়েছেন তাঁরা।

তরুণীরা নিজেদের নির্দোষ বলে দাবি করলেও মোগা পুলিশ কিন্তু অন্য কথা বলছে। তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকেও পুরোপুরি অস্বীকার করেছে মোগা পুলিশ। পুলিশ অফিসার কুলজিন্দর সিংহের পাল্টা দাবি, ওই দুই তরুণীর বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা দায়ের হয়েছে। সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। এক ব্যক্তি প্রতারণার অভিযোগ করেছেন ওই তরুণীদের বিরুদ্ধে। তাঁর অভিযোগ, ছেলেকে বিদেশে পড়ানোর জন্য তরুণীদের টাকা দিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁরা প্রতারণা করেন।

কুলজিন্দর আরও বলেন, “শুনেছি রাষ্ট্রপতির কাছে ওই দুই তরুণী চিঠি পাঠিয়েছেন। কিন্তু সরকারি ভাবে আমার কাছে এমন কোনও খবর আসেনি। আমরা মামলাটি তাড়াতাড়ি সমাধানের চেষ্টা করছি।” তরুণীদের বার বার তলব করলেও সহযোগিতা করছেন না। ফলে তদন্তে সমস্যা হচ্ছে বলেও জানান কুলজিন্দর।

আরও পড়ুন: মধ্যরাতে টালিগঞ্জ থেকে গাঁজা-সহ গ্রেফতার শিলাজিতের ছেলে

আরও পড়ুন: শিন্ডে-খড়্গে নন, রাহুলের উত্তরসূরি হোন তরুণ কেউ, মত ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিংহের