• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন থেকে আয় ৪২৯ কোটি, কেন্দ্রকে ‘দরিদ্র-বিরোধী’ তকমা রাহুলের

Rahul Gandhi
ফের কেন্দ্রকে আক্রমণ রাহুলের। —ফাইল চিত্র।

করোনা পরিস্থিতি সামাল দেওয়া নিয়ে লাগাতার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে আসছেন তিনি। এ বার কেন্দ্রীয় সরকারকে ‘দরিদ্র-বিরোধী’ বলে আক্রমণ করলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গাঁধী। করোনা সঙ্কটে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য ট্রেন চালিয়ে রেল ৪২৯ কোটি টাকা ঘরে তুলেছে বলে জানা গিয়েছে। তা নিয়েই কেন্দ্রকে তীব্র আক্রমণ করেছেন রাহুল। তাঁর অভিযোগ, বিপর্যয়ের সময়েও ফায়দা তুলতে ব্যস্ত মোদী সরকার।

শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন বাবদ রেল কত টাকা আয় করেছে, শনিবার তার একটি রিপোর্ট টুইটারে তুলে ধরেন রাহুল। তিনি লেখেন, ‘‘রোগের কালো মেঘে আকাশ ছেয়ে গিয়েছে। মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন, আর কেউ লাভ ঘরে তুলতেই ব্যস্ত—বিপর্যয়কে মুনাফায় বদলে নিয়ে আয় করছে সরকার।’’

করোনা সঙ্কটে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে গত ১ মে থেকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্র। সম্প্রতি রেলমন্ত্রর তরফে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়, তা থেকে জানা গিয়েছে, ৯ জুলাই পর্যন্ত ৪ হাজার ৪৯৬টি ট্রেন চালিয়েছে রেল। সব মিলিয়ে প্রায় ৬৩ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিককে গন্তব্যে পৌঁছে দিয়েছে তারা। তাতে ভাড়া বাবদ ৪২৯ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা আয় হয়েছে।

রাহুলের টুইট।

আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ, রয়েছেন কোয়রান্টিনে​

আরও পড়ুন: রাজ্যপালকে জবাবের প্রস্তুতি, মধ্যরাতে জরুরি বৈঠক গহলৌত শিবিরের​

এর মধ্যে গুজরাত থেকেই সবচেয়ে বেশি আয় হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের ভাড়া বাবদ ১০২ কোটি টাকা রেলকে দিয়েছে তারা। মহারাষ্ট্র দিয়েছে ৮৫ কোটি টাকা এবং তামিলনাড়ু ৩৪ কোটি টাকা দিয়েছে। তা নিয়েই কেন্দ্রকে একহাত নিয়েছেন রাহুল।

তবে সংবাদ সংস্থা পিটিআই যে তথ্য সামনে এনেছে, তাতে দেখা গিয়েছে, প্রত্যেক পরিযায়ী শ্রমিক পিছু ৩ হাজার টাকা খরচ করেছে রেল। তাই ভাড়া বাবদ ৪২৯ কোটি টাকা আয় করলেও, শ্রমিক স্পেশাল ট্রেল চালাতে মোট ২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা খরচ হয়েছে তাদের। অর্থাৎ যে টাকা খরচ করেছে রেল, তার মাত্র ১৮ শতাংশ তাদের হাতে ফিরে এসেছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন