• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পাথরিই সাঁইবাবার জন্মস্থান, উদ্ধবের মন্তব্যের জেরে অনির্দিষ্ট কালের বন্‌ধ শিরডিতে

sai baba
সাঁই বাবার মন্দিরে উদ্ধব ঠাকরে। -ফাইল চিত্র।

Advertisement

মহারাষ্ট্রের পরভণি জেলার পাথরিকে সাঁইবাবার জন্মস্থান ঘোষণা করে ওই জায়গার উন্নয়নে ১০০ কোটি টাকার অনুদান ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। সে কারণে উদ্ধবের প্রতি অসন্তুষ্ট সাঁইবাবা সংস্থান ট্রাস্ট। আগামী কাল অর্থাৎ রবিবার থেকে সাঁইবাবার সমাধি মহারাষ্ট্রের শিরডিতে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্‌ধ ডেকেছে তারা। ফলে শিরডিতে সাঁইবাবার সমাধিস্থান বলে খ্যাত মন্দির দর্শনের জন্য আগত পর্যটক এবং ভক্তদের ভীষণ সমস্যায় পড়তে হতে পারে।

ভক্তদের মতে, মহারাষ্ট্রের আহমেদনগর জেলার শিরডিতেই শেষ জীবন কাটিয়েছিলেন সাঁইবাবা। এখানকার মন্দির তাই ভীষণ বিখ্যাত। সারা বছর জুড়ে হাজার হাজার ভক্ত সমাগম হয় এই মন্দিরে। সম্প্রতি উদ্ধব ঠাকরে আহমেদনগরের পাশের জেলা পরভণির পাথরিতে এক অনুষ্ঠানে গিয়ে সেই জায়গাকেই সাঁইবাবার জন্মস্থান হিসাবে উল্লেখ করেন। ওই শহরের উন্নয়নের জন্য ১০০ কোটি টাকা অনুদানের কথাও বলেন তিনি। তাঁর কথায় অসন্তুষ্ট সাঁইবাবা ট্রাস্ট এবং তাঁর ভক্তদের একটা বড় অংশ।

ওই ট্রাস্টের প্রাক্তন সদস্য কৈলাস বাপু কোটে বলেন, “সাঁইবাবার জন্মস্থান সংক্রান্ত কোনও নথি নেই। শিরডিতে থাকাকালীনও সাঁইবাবা কোনও দিন নিজের ধর্ম এবং জন্মস্থান নিয়ে কোনও তথ্য জানাননি।” তা হলে কিসের ভিত্তিতে মুখ্যমন্ত্রী এমন মন্তব্য করলেন, প্রশ্ন কৈলাসের।

আরও পড়ুন: ‘এঁদের জন্যই ধর্ষণ বন্ধ হয়নি’, ইন্দিরা জয়সিংহকে তোপ আশাদেবীর

আরও পড়ুন: বাবা-মায়ের জন্মস্থানের তথ্য নিয়ে এনপিআর বৈঠকে আপত্তি

রবিবার থেকেই শিরডিতে অনির্দিষ্ট কালের বন্‌ধ ডাকা হয়েছে। তবে সাঁইবাবার মন্দির, হাসপাতাল, ভক্তনিবাস, স্থানীয় ওষুধের দোকান এবং মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারি বাস— এ সব চালু থাকবে বলে জানানো হয়েছে। সরকারি বাস পরিষেবা চালু থাকলেও অটো-ট্যাক্সি চলাচল বন্ধ থাকবে বন্‌ধের কারণে। ফলে যে সমস্ত ভক্তেরা বিমানে বা ট্রেনে আসবেন, তাঁদের কিছুটা হলেও সমস্যায় পড়তে হতে পারে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন