মহাত্মা গাঁধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসেকে ‘দেশপ্রেমিক’ বলে আখ্যা দিয়েছিলেন ভোপালের বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা ঠাকুর। আজ সর্বদলীয় বৈঠকে মহাত্মা গাঁধীর দেড়শোতম জন্মবার্ষিকী উদ্‌যাপন নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে তা নিয়ে কটাক্ষ শুনতে হল নরেন্দ্র মোদীকে। সর্বদলীয় বৈঠকে সিপিএমের সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, ‘‘গাঁধীজির দেড়শোতম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর গঠিত কমিটিতে আমিও রয়েছি। কিন্তু গাঁধীর সার্ধশতবর্ষ উদ্‌যাপন করতে হলে তো তাঁর হত্যাকারীকে যে বা যারা সমর্থন করেন, তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। আমরা সেই দাবি তুলেছি।’’ মোদী সংখ্যালঘুদের আস্থা জেতার কথা বলে ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ’-এর সঙ্গে ‘সবকা বিশ্বাস’-এর লক্ষ্য স্থির করেছিলেন। ইয়েচুরির যুক্তি, ‘‘গাঁধীজির মূল মন্ত্র ছিল ধর্মনিরপেক্ষতা। ‘সবকা বিশ্বাস’ অর্জন করতে হলে গণপিটুনি বন্ধ করার জন্য আইন আনতে হবে। পুলিশের হাতেই আইন থাকতে হবে, গোরক্ষক বাহিনীর মতো বেসরকারি বাহিনীর হাতে আইন তুলে দিলে চলবে না।’’

বৈঠকের পর রাজনাথ সিংহ বলেন, ‘‘সব দলের মত হল, তরুণ প্রজন্মের সামনে গাঁধীজির আদর্শ তুলে ধরতে হবে। চলতি বছরে গাঁধীজির সার্ধশতবর্ষে এমন কিছু প্রতিজ্ঞা করতে হবে, ২০২২-এ স্বাধীনতার ৭৫তম বছরে যা পালন করা হবে।’’