দেশের গোটা শিক্ষা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানো উচিত বলে অভিমত জানাল সুপ্রিম কোর্ট। পড়ুয়াদের যাতে বিভিন্ন কোর্সে ভর্তি হতে গিয়ে হেনস্থা হতে না হয়, অনিশ্চয়তায় ভুগতে না-হয়— সেই জন্যই কেন্দ্রীয় ও সব রাজ্যের সরকারকে এ দিকে নজর দেওয়া উচিত বলে মঙ্গলবার মন্তব্য করেছে সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ।
মহারাষ্ট্রে ২০১৯-২০-র মেডিক্যাল ও ডেন্টাল স্নাতকোত্তর কোর্সে ভর্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে টালবাহানা, মামলা-মোকদ্দমা চলছে। সেই সংক্রান্ত এক মামলায় বিচারপতি ইন্দু মলহোত্র ও বিচারপতি মুকেশকুমার রসিকভাই শাহের বেঞ্চ মহারাষ্ট্র সরকারের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করেছে।

মহারাষ্ট্র সরকার চলতি বছরে গরিবদের জন্য ১০ শতাংশ সংরক্ষণ চালুর নির্দেশ দিলে শীর্ষ আদালত তাতে স্থগিতাদেশ জারি করেছিল। পরে নতুন করে মেধা তালিকা তৈরির আর্জি নিয়ে কয়েক জন পড়ুয়া ফের সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়। সেই মামলার রায় দিতে গিয়েই বেঞ্চ প্রশ্ন তোলে, সুপ্রিম কোর্টের স্থগিতাদেশের পরেই কেন মহারাষ্ট্র সরকার নতুন মেধা তালিকা তৈরি করেনি? কেন এত মামলা মোকদ্দমা?
ছাত্রদের কেন অনিশ্চয়তায় ভুগতে হচ্ছে? বেঞ্চ জানিয়েছে, ১৪ জুনের মধ্যে ভর্তির জন্য কাউন্সেলিং শেষ করতে হবে। এ নিয়ে আর কোনও মামলা করা যাবে না। পড়ুয়ারা পছন্দের বিষয়ও নতুন করে বদলের সুযোগ পাবেন না।