• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সংসদের বারান্দায় দাঁড়িয়েই বক্তৃতা

Lok Sabha
ছবি: পিটিআই।

সংসদের বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকেই তৃণমূল রাজ্যসভায় ধারাবাহিক ভাবে নোটিস দিচ্ছে যাতে অধিবেশনের অন্যান্য কাজ মুলতুবি করে সাম্প্রতিক দিল্লি হিংসা নিয়ে আলোচনা করা হয়। কিন্তু তা গ্রাহ্য না হওয়ায় সংসদের বারান্দায় দাঁড়িয়ে এই বিষয়ে নিজেদের বক্তব্য পেশ করার এক অভিনব পদ্ধতি নিল তৃণমূল। আজ সকাল নটায় ট্রাইপড ও ক্যামেরা নিয়ে সংসদে পৌঁছে যান দলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন। সংসদের একতলায় রাজ্যসভায় ঢোকার দরজার সামনে দাঁড়িয়ে ক্যামেরায় বক্তৃতা দেন তিনি। পরে সেই ভিডিয়োটি প্রকাশ করা হয়। 

ওই ভিডিয়োয় ডেরেকের বক্তব্য, ‘‘দিল্লির গণহত্যায় একটিমাত্র রাজনৈতিক দলের যে লাভ হয়েছে সেটা সবাই জানে। শুধুমাত্র রাজনীতির জন্য এটা করা হয়েছে। গোটা হিংসা শুরু হয়েছে বিদ্বেষমূলক স্লোগান থেকে। দেখা যাচ্ছে এই স্লোগানের প্রধান উদ্যোক্তা কপিল মিশ্রকে বিশেষ নিরাপত্তা দিয়েছে সরকার! মন্ত্রীরাও স্লোগান দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিশ্চয় কোনও ভাবে এই স্লোগানে ছাড়পত্র দিয়েছিলেন। তাই এটা করা সম্ভব হয়েছে।’’ 

তৃণমূল নেতার আরও বক্তব্য, সোমবার থেকে প্রত্যেক দিন এই নিয়ে নোটিস দেওয়া সত্ত্বেও কোনও লাভ হয়নি। তাই সংসদের রাজ্যসভার কক্ষে যেটা তাঁর বলার কথা ছিল, সেটা তাঁকে একতলার বারান্দায় দাঁড়িয়েই বলতে হচ্ছে। দিল্লির হিংসার ফলে পীড়িত মানুষদের দু’টি ঘটনার কথা উল্লেখ করে ডেরেকের অভিযোগ, কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ দিল্লি পুলিশ নিষ্ক্রিয়। অমিত শাহ এখনও কেন দাঙ্গা পীড়িতদের দেখতে গেলেন না সেই অভিযোগও তুলেছে তৃণমূল। ডেরেকের বক্তব্য, অমিত শাহেরা সংসদ এড়িয়ে যাচ্ছেন বিরোধীদের কড়া প্রশ্নের মুখোমুখি হতে চান না বলেই।     

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন