জোটসঙ্গী আইপিএফটি-র ক্ষোভ মেটাতে তাঁদের সঙ্গে আলোচনায় বসলেন বিজেপি নেতৃত্ব। আলোচনার শেষে ত্রিপুরার নতুন মন্ত্রিসভায় আইপিএফটি-র যোগ দেওয়ার বিষয়টি সুরাহা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি এন সি দেববর্মা। 

বিজেপি-র সঙ্গে জোট গড়ে এ বার ৮টি উপজাতি আসনে জয়ী হয়েছে আইপিএফটি। স্বয়ং এন সি টাকারজলা কেন্দ্র থেকে রাজ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ ১২,৬৫২ ভোটে জিতেছেন। প্রকাশ্যে আইপিএফটি-র দাবি ছিল, জনজাতি কাউকে মুখ্যমন্ত্রী করতে হবে। নিদেনপক্ষে উপ-মুখ্যমন্ত্রী পদের প্রত্যাশী ছিল তারা। কিন্তু বিজেপি উপ-মুখ্যমন্ত্রী হিসাবেও দলীয় প্রার্থী জিষ্ণু দেববর্মার নাম ঘোষণা করে দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ত্রিপুরায় বিধানসভা ভোটের দায়িত্বপ্রাপ্ত হিমন্তবিশ্ব শর্মার উপস্থিতিতে আগরতলায় বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে আইপিএফটি নেতাদের ঘরোয়া বৈঠক হয়েছে। আলোচনার বিষয়ে বিশদে মুখ না খুললেও এন সি বলেছেন, মন্ত্রিসভা গঠন এবং দফতর বণ্টনের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা নিয়ে কথা হয়েছে। এন সি-র বক্তব্য, সৌহার্দ্যমূলক পরিবেশেই আলোচনা হয়েছে। আইপিএফটি-র কত জন মন্ত্রিত্ব পাবেন? এন সি-র জবাব, ‘‘শপথ গ্রহণের দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করুন!’’