মন্ত্রিসভা থেকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপ রায়বর্মণকে ছেঁটে ফেলার পরে এ বার সরানো হল ত্রিপুরার স্বাস্থ্যসচিবকে। শনিবার রাতের দিকে এ নিয়ে নির্দেশ জারি হয়েছে। গত ছ’মাসে স্বাস্থ্য দফতরে কী কাজ হয়েছে, তার পর্যালোচনার জন্যে দফতরেরর আধিকারিককে সমস্ত নথি পত্র নিয়ে আগামিকাল মহাকরণে যেতে বলা হয়েছে।

সুদীপবাবুকে বরাখাস্ত করা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব আজ মুখ খোলেন। তাঁর বক্তব্য, ‘‘কে কাকে সন্তুষ্ট করছে এটা বিষয় নয়। সবার আগে জনগণ এবং দলকে সন্তুষ্ট করতে হবে। দল বা সংগঠনের মাধ্যমেই মানুষ আমাদের চেনেন। কিছু দিন আগেও বিপ্লব দেবকে এ রাজ্যের মানুষ চিনতেন না। এখন দলের জন্যই আমাকে চেনেন।’’

মুখ্যমন্ত্রীর মতে, সুদীপবাবু বিভীষণের মতো কাজ করেছেন।
রাজ্য রাজনীতিতে সুদীপবাবু পরিচিত মুখ। কংগ্রেস থেকে তৃণমূল হয়ে বিজেপিতে গিয়েছেন। মন্ত্রিপদ খোয়ানোর পর এখন ফেসবুকে নিজের গাওয়া গান আপলোড করেছেন, ‘...জিন্দগী হর কদম, এক নয়ী জং হ্যায়, জিত জায়েঙ্গে হম, তু আগর সঙ্গ হ্যায়...।” কার ‘সঙ্গে থাকা’র কথা বলতে চাইছেন সুদীপবাবু? এটা কি কংগ্রেসে ফিরতে চাওয়ার বার্তা!
এ সব নিয়েই চর্চা শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।