• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যোগীর রাজ্যে গুলি করে খুন হিন্দুত্ববাদী নেতাকে

Ranjit Bachchan
রঞ্জিত বচ্চন। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

খাস লখনউ শহরের প্রাণকেন্দ্রে সাতসকালে খুন। অজ্ঞাতপরিচয় আততায়ীর গুলিতে নিহত হলেন ‘বিশ্ব হিন্দু মহাসভা’ নামে একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের উত্তরপ্রদেশের সভাপতি রঞ্জিত বচ্চন। আজ হজরতগঞ্জ এলাকায় তিনি যখন প্রাতর্ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন, তখন তাঁর উপরে হামলা চালায় এক দুষ্কৃতী। এর পিছনে পারিবারিক বিবাদ না অন্য কিছু, স্পষ্ট নয়। কিন্তু যোগীর রাজ্যে এমন ঘটনা আরও একবার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির হাল নিয়ে গুরুতর প্রশ্ন তুলে দিল। কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে চার পুলিশকে সাসপেন্ড করেছে প্রশাসন।

পুলিশের যুগ্ম কমিশনার নবীন অরোরা জানিয়েছেন, ঘটনাটি ঘটেছে সকাল ৬টা নাগাদ। পারিবারিক বা রাজনৈতিক বিবাদ, কোনও সম্ভাবনাই উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না। তবে রঞ্জিতের বিরুদ্ধে বছর তিনেক আগে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছিলেন তাঁরই এক শ্যালিকা। পুলিশ জানিয়েছে, প্রতিদিনের মতো আজও প্রাতর্ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন বছর চল্লিশের রঞ্জিত। সঙ্গে ছিলেন সম্পর্কিত ভাই আদিত্য শ্রীবাস্তব। দুষ্কৃতী হামলায় তিনিও আহত হয়ে নিকটবর্তী হাসপাতালের ট্রমা সেন্টারে ভর্তি রয়েছেন। তাঁর বাঁ হাতে গুলি লেগেছে। যুগ্ম কমিশনার অরোরা বলেন, ‘‘আদিত্য তাদের জানিয়েছেন, দুই ভাই হাঁটতে হাঁটতে ওসিআর বিল্ডিং থেকে ফিরে পরিবর্তন চকের দিকে যাচ্ছিলেন। তখন গায়ে শাল জড়ানো এক ব্যক্তি তাঁদের পথ আটকায় এবং মোবাইল ফোনগুলি কেড়ে নেয়। তার পরেই গুলি।’’ অরোরা জানিয়েছেন, রঞ্জিতের মাথায় গুলি লেগেছে। ঘটনাস্থলেই তিনি প্রাণ হারান। আদিত্য কোনওমতে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। তখন আততায়ী তাঁকেও গুলি করে।

গত কাল ১ ফেব্রুয়ারি জন্মদিন ছিল ‘বিশ্ব হিন্দু মহাসভা’র প্রতিষ্ঠাতা রঞ্জিতের। ধুমধাম করে তা উদ্‌যাপনও করা হয়। সেখানে রামায়ণের একটি অংশ আবৃত্তি করেছিলেন তিনি। পুলিশ সূত্রের খবর, রঞ্জিতের দুই স্ত্রী। রঞ্জিত থাকতেন প্রথম স্ত্রী কালিন্দী শর্মার সঙ্গে। দ্বিতীয় স্ত্রীর তিন বছরের মেয়ে রয়েছে। রঞ্জিতের এক শ্যালিকা ২০১৭ সালে তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। অরোরা বলেন, ‘‘খুনের কিনারা করতে ক্রাইম ব্রাঞ্চের আটটি দল তদন্ত করছে। দাম্পত্য অশান্তির বিষয়টিতেও নজর রাখছি।’’ আজ রাতে ঘটনাস্থলে সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ করে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের পরে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন কালিন্দী।

নিহত রঞ্জিত আগে সমাজবাদী পার্টির (এসপি) সদস্য ছিলেন। এক সময় এসপি প্রধান তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবের ঘনিষ্ঠ বলেও পরিচিত ছিলেন তিনি। পরে ‘বিশ্ব হিন্দু মহাসভা’য় যোগ দেন। সাড়ে সাত লক্ষ কিলোমিটার সাইকেল চালানোর রেকর্ড রয়েছে রঞ্জিতের।

অক্টোবরেও উত্তরপ্রদেশে নিজের

বাড়িতে খুন হন হিন্দু সমাজ পার্টির সভাপতি কমলেশ তিওয়ারি। তাঁর মুখে গুলি করার পরে ১৫ বার ছুরিকাঘাত করেছিল দুষ্কৃতীরা। বিরোধীরা নিয়মিত অভিযোগ করছেন, যোগীর রাজত্বে উত্তরপ্রদেশে আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে।আজকের ঘটনায় সরব হয়েছে হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিও। যোগী নিজে এ দিন দিল্লি গিয়েছেন প্রচারের কাজে। তা নিয়ে কটাক্ষ করে উত্তরপ্রদেশে দলের সভাপতি খুনের ঘটনায় যোগী সরকারকে এক হাত নেন অখিল ভারতীয় হিন্দু মহাসভার সভাপতি স্বামী চক্রপাণি। বলেন, ‘‘যোগীকে ঠিক করতে হবে তিনি অন্য রাজ্যে ভোট প্রচার করবেন, না কি নিজের রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা সামলাবেন।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন