‘হামলা’র বদলা নিতে সাইটে হ্যাকার হানা
আরএসএসের ছাত্র সংগঠন এবিভিপিও জানিয়েছে, কেরলের বামপন্থী পড়ুয়ারা জম্মুর ক্যাম্পাসে গোলমালের জন্য আরএসএসের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ এনেছেন।
hacking

প্রতীকী ছবি।

জম্মু কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কেরলের পড়ুয়াদের উপরে হামলার অভিযোগ উঠেছিল শুক্রবার। তার ‘বদলা’ হিসেবে এ দিন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট হ্যাক করার অভিযোগ উঠেছে অজ্ঞাতপরিচয় হ্যাকারদের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার জম্মু বিশ্ববিদ্যালয়ে কেরল ও তামিলনাড়ুর বাসিন্দা এক দল পড়ুয়া দাবি করেন, ‘গোমাংসভোজী’ ও ‘দেশদ্রোহী’ বলে তাদের গালিগালাজ করেছেন এবিভিপি-র সমর্থকেরা। তার পরে তাঁদের মারধরও করা হয়েছে। আজ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানান, তাঁদের ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয়েছে। ‘কেরল সাইবার ওয়ারিরর’ পরিচয় দিয়ে এক দল দুষ্কৃতী সেখানে লিখেছে, ‘‘এই হামলা কেরল-তামিলনাড়ুর পড়ুয়াদের উপরে আরএসএস-এবিভিপি-র বুদ্ধিহীন সমর্থকদের আক্রমণের বদলা।’’ 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক অশোক আইমার দাবি, ‘‘কোনও পড়ুয়ার উপরে হামলা হয়নি। কেরলের এই পড়ুয়ারা বামপন্থী ছাত্র সংগঠন এআইএসএফেএর সদস্য। অশান্তি পাকানোই এদের উদ্দেশ্য।’’ সাইট হ্যাক নিয়ে পুলিশে অভিযোগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

আরএসএসের ছাত্র সংগঠন এবিভিপিও জানিয়েছে, কেরলের বামপন্থী পড়ুয়ারা জম্মুর ক্যাম্পাসে গোলমালের জন্য আরএসএসের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ এনেছেন। এবিভিপি-র হুঁশিয়ারি, ‘‘এর পরে যদি পরিস্থিতির অবনতি হয় তবে ওই পড়ুয়ারাই সে জন্য দায়ী থাকবেন।’’ কেরলের পড়ুয়াদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য জম্মু-কাশ্মীর সরকারকে চিঠি লিখেছেন কেরলের মুখ্যসচিব টম জোসে।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত