• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চিনারা ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকেছে, রাজনৈতিক কেরিয়ার ধ্বংস হলেও সত্যি বলব: রাহুল

Rahul Gandhi
রাহুল গাঁধী। ছবি: ভিডিয়ো থেকে

সীমান্তে ভারত এবং চিনের সঙ্ঘাতের উত্তাপ খানিকটা কমেছে। কিন্তু তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা থামাচ্ছেন না রাহুল গাঁধী। এই ইস্যুতে এ যাবৎ লাগাতার আক্রমণ শানিয়ে আসছিলেন তিনি। সোমবার তার ধার আরও বাড়ালেন। রবিবার একটি ভিডিয়ো বার্তায় তিনি জোর গলায় দাবি করেছেন, এখনও ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করে রয়েছে চিন। এ প্রসঙ্গেই তাঁর মন্তব্য, ‘‘আমার রাজনৈতিক কেরিয়ার ধ্বংস হলে গেলেও আমি মিথ্যা কথা বলব না।’’

টুইটে রাহুল লিখেছেন, ‘‘চিনারা ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করেছে। সত্য গোপন করা এবং তাদের সুযোগ দেওয়াটাই জাতীয়তাবাদ বিরোধী। এটা জনগণের সামনে তুলে ধরাটাই দেশপ্রেম।’’ এর সঙ্গে রাহুলের একটি ভিডিয়ো বার্তাও রয়েছে।

১ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের ভিডিয়োয় রাহুল বলেন, ‘‘ভারতীয় হিসাবে আমি আমার দেশ এবং দেশের মানুষকে অগ্রাধিকার দিই। এখন এটা স্পষ্ট যে চিনারা আমাদের ভূখণ্ডে ঢুকেছে। এটা আমাকে বিরক্ত করছে। সাফ জানাই, আমার রক্ত টগবগ করে ফুটছে।’’ এই সূত্রেই তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘কী করে অন্য একটা দেশের সেনা আমাদের ভূখণ্ডে ঢুকে পড়ল?’’

আরও পড়ুন: ফের চিনের বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’! এ বার নিষিদ্ধ হতে পারে পাবজিও

ভিডিয়ো বার্তায় দেশের শাসক দল বা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাম করেননি রাহুল। কিন্তু তাঁর প্রশ্ন যে কার উদ্দেশে তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন। রাহুলের নিশানায় কারা তাও পরিষ্কার। এর পরই রাহুল বলেন, ‘‘এই ঘটনায় এক জন রাজনীতিবিদ হিসাবে আমি চুপ থাকতে পারব না, মিথ্যাও বলতে পারব না। কারণ আমি পরিষ্কার জানি যে চিনা অনুপ্রবেশ ঘটেছে। আবেগতাড়িত গলায় তিনি বলেন, ‘‘আমি স্যাটেলাইট ছবি দেখেছি, প্রাক্তন সেনাকর্তাদের সঙ্গেও কথা বলেছি। এর পর আমি এই মিথ্যা বলতে পারব না যে চিনা অনুপ্রবেশ ঘটেনি। আমার গোটা রাজনৈতিক কেরিয়ার ধ্বংস যাক, আমি মিথ্যা বলতে পারব না।’’ এই সূত্রেই নাম না করে কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করে তোপ দেগেছেন রাহুল। তাঁর মতে, ‘‘যারা বলছে চিনা অনুপ্রবেশ ঘটেনি তারা জাতীয়তাবাদী নয়, দেশপ্রেমীও নয়।’’

আরও পড়ুন: ফ্রান্স থেকে উড়ল প্রথম দফার ৫টি রাফাল, ভারতে পৌঁছবে বুধবার

‘টাফ কোয়েশ্চেনস অন চায়না’ অর্থাৎ ‘চিন নিয়ে কঠিন প্রশ্ন’, এই শিরোনামেই ভিডিয়ো বার্তাটি শেয়ার করেছেন রাহুল। এর আগেও এমন ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন ওই কংগ্রেস নেতা। ১৭ জুলাই দেশের ‘সমস্যাসঙ্কুল অর্থনীতি, বিদেশনীতি এবং প্রতিবেশী’ এই বিষয়ে প্রথম ভিডিয়ো বার্তা শেয়ার করেন রাহুল। ২০ জুলাই তাঁর দ্বিতীয় ভিডিয়ো বার্তা ছিল ‘চিনের কৌশল এবং গেম প্ল্যান’ সংক্রান্ত বিষয়ে। আগের দু’টি ক্ষেত্রেই নানা যুক্তিতে মোদী সরকারকে বিঁধেছেন রাহুল। তাঁর ভিডিয়ো বার্তা নিয়ে কংগ্রেসকে ‘টুইটের পার্টি’ বলে কটাক্ষও করে বিজেপি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন