বীরত্ব ও সাহসিকতায় জাতীয় পদক প্রদানে পাকিস্তান এবং জম্মু-কাশ্মীরের ছায়া!

অসম সাহস এবং দৃঢ়তার জন্য বীরচক্র সম্মান পাচ্ছেন পাকিস্তানের হাতে বন্দি হওয়া বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। স্বাধীনতা দিবসে তাঁকে ওই সম্মান প্রদান করা হবে। বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার অভিযানে অংশ নেওয়া পাঁচ অফিসারকে বায়ুসেনা পদক দেওয়া হবে। এ বার সব চেয়ে বেশি পদক পাচ্ছেন জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করা জওয়ান ও সিআরপিএফের সদস্যেরা।

২০১৮ সালে জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জইশ জঙ্গিদের সঙ্গে বীরত্বের সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য পুলিশ পদক পাচ্ছেন সিআরপিএফের বিপ্লব বিশ্বাস। বালাকোট অভিযানের পর ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতে হামলা করতে আসা পাকিস্তানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমানকে মিগ-২১ নিয়ে তাড়া করেছিলেন অভিনন্দন। পাক ভূখণ্ডে ঢুকে পড়ার পর ভেঙে পড়েছিল মিগ-২১। বন্দি হন অভিনন্দন। ৬০ ঘণ্টা পর মুক্তি পান তিনি।

বালাকোটে অভিযান চালানো বায়ুসেনার পাঁচ অফিসার বীরত্ব-সাহসিকতার জন্য বায়ুসেনা পদক পাচ্ছেন। যুদ্ধ সেবা পদকে সম্মানিত করা হবে বায়ুসেনার স্কোয়াড্রন লিডার মিন্টি আগরওয়ালকে। ২৭ ফেব্রুয়ারি পাক হামলার সময় তাঁর দায়িত্ব ছিল, পাক যুদ্ধবিমানগুলিকে চিহ্নিত করে রুখে দেওয়া। জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি দমনে বীরত্বের জন্য পদক পাবেন ১১৪ জন সেনাকর্মী। সিআরপিএফের ৭৫ জন সদস্যকে এ বার পুরস্কৃত করা হচ্ছে। তার মধ্যে জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি দমনের জন্য পদক পাচ্ছেন ৬১ জন।