নয়ডায় দুই বহুতলের মাঝের সংকীর্ণ ফাঁকা জায়গা থেকে বিকৃত অবস্থায় এক তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার হল। মাটি থেকে ১২০ ফুট উঁচুতে, দেড় ফুট ব্যবধানে কোনওরকমে ঝুলছিল দেহটি। মঙ্গলবার সেখান থেকে দেহটি উদ্ধার করে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর(এনডিআরএফ) একটি দল। ওই তরুণীকে খুন করা হয়েছে বলে সন্দেহ পুলিশের।

নয়ডার ৭৬ নম্বর সেক্টরের আম্রপালি সিলিকন সোসাইটিতে ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত তরুণী আদতে বিহারের কাটিহার জেলার বাসিন্দা। নয়ডায় ওই সোসাইটির-ই একটি পরিবারে পরিচারিকার কাজ করতেন। গত ২৮ জুন থেকে নিখোঁজ ছিলেন।

নয়ডা পুলিশের এক আধিকারিক জানান, ওই তরুণী যে পরিবারে কাজ করতেন, সেই পরিবারের দম্পতি ব্যক্তিগত কাজে শহরের বাইরে গিয়েছিলেন। প্রতিবেশীদের কাছে খবর পেয়ে ফিরে এসেছেন তাঁরা। দেহটি বিকৃত এবং ফোলা অবস্থায় উদ্ধার হয় এবং শরীরে একাধিক ক্ষতচিহ্ন ছিল বলেও জানান তিনি।  

আরও পড়ুন: কলকাতায় ২ লাখ ‘কাটমানি’ চেয়ে খুনের হুমকি, ব্যবসায়ীর নামে এফআইআর-এ সই পুলিশের!​

৩৫ জনের একটি দল নিয়ে গতকাল দুপুরে দেহটি উদ্ধার করতে যান এনডিআরএফ আধিকারিক জিতেন্দ্রকুমার যাদব। দুপুর ৩টে নাগাদ দেহটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জিতেন্দ্র  বলেন, ‘‘১৬ তলা থেকে দড়ির সাহায্যে দেহটি উদ্ধার করা হয়। আবাসনের সি ও ডি ব্লকের মধ্যে দেড় ফুট জায়গায় আটকে ছিল সেটি। যন্ত্রের সাহায্যে দেওয়ালের কিছুটা অংশ কেটে ১২০ ফুট উচ্চতা থেকে দেহটি উদ্ধার করা হয়।’’

আরও পড়ুন: রাজ্যের নাম পাল্টে ‘বাংলা’এখনই নয়, সংবিধান সংশোধনী বিল পেশ হয়নি, জানিয়ে দিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক​

কিন্তু অত উঁচুতে দেহটি পৌঁছল কী করে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।