পদ্মাবতী’ থেকে ‘পদ্মাবত’ হয়েও রেহাই মিলছে না সঞ্জয়লীলা ভংসালীর ছবির। নাম বদলে সেন্সর বোর্ডের ছাড় পেয়েছে ছবিটি। মুক্তি পাওয়ার কথা আগামী ২৫ জানুয়ারি। কিন্তু তার আগেই ফের বড়সড় হুমকির মুখে পড়তে হল ‘পদ্মাবত’কে।

আর সেই হুমকি দিলেন রাজস্থানের চিতোরগড়ের ক্ষত্রিয় সম্প্রদায়ের মহিলারা। তাঁরা হুমকি দিয়েছেন, ‘পদ্মাবত’-এর মু্ক্তি বন্ধ না করা হলে জওহর (আত্মাহুতি) পালন করবেন।

পদ্মাবত-এর মুক্তির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে শনিবার সর্বসমাজ একটি সভার আয়োজন করে। সেই সভায় হাজির ছিলেন প্রায় ৫০০ জনের মতো সদস্য। যাঁদের মধ্যে ১০০ জনই মহিলা। সূত্রের খবর, এঁরা সকলেই হাই-প্রোফাইল পরিবারের। ওই সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, পদ্মাবত-এর মুক্তি আটকাতে দেশজুড়ে দফায় দফায় আন্দোলনে নামবে তারা।

আরও পড়ুন: প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত পঞ্চম শ্রেণির তিন ছাত্র

সংবাদ সংস্থা আইএএনএস-কে রাজপুত করণী সেনার মুখপাত্র বীরেন্দ্র সিংহ জানিয়েছেন, আগামী ১৭ জানুয়ারি এর প্রতিবাদে চিতোরগড়ে জাতীয় সড়ক, রেল অবরোধ করবেন তাঁরা। বীরেন্দ্রর ক়ড়া হুঁশিয়ারি, তাঁদের প্রতিবাদ, আন্দোলনের পরেও যদি ছবিটি মুক্তি দেওয়া হয়, তা হলে মুক্তির ওই নির্ধারিত দিনেই ক্ষত্রিয় সমাজের মহিলারা ‘জওহর’ পালন করবেন। এবং সেই জায়গায় যেখানে রানি আত্মাহুতি দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: ওএনজিসি-র কপ্টার দুর্ঘটনায় ছ’জনের দেহ উদ্ধার

ছবিটির প্রদর্শনী বন্ধ করার সেই আর্জি জানিয়ে করণী সেনার এক প্রতিনিধি দল রবিবার উদয়পুরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে। আগামী ১৬ জানুয়ারি বারমের জেলায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর সঙ্গেও একটি প্রতিনিধি দল দেখা করবে বলে করণী সেনা সূত্রে জানানো হয়েছে।