• সংবাদ সংস্থা               
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ভোর রাতে নাবালিকা প্রেমিকার বাড়িতে দেখা করতে গিয়ে মর্মান্তিক পরিণতি যুবকের

UP
প্রতীকী চিত্র। গ্রাফিক তিয়াসা দাস।

চলছে লকডাউন। বেরনো বারণ। তাই রাত দুপুরে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাড়ি গিয়েছিলেন ২৫ বছরের যুবক। সেই সময় প্রেমিকার বাড়ির লোকের কাছে ধরা পড়ে যান তিনি। পরিবারের লোকের বেদম প্রহারে মৃত্যু হয় ওই যুবকের ও ১৭ বছরের নাবালিকা প্রেমিকার। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের লখনউতে।   

ওই যুবকের নাম আবদুল করিম। শনিবার রাত তিনটে নাগাদ তিনি গিয়েছিলেন সাদাতগঞ্জ এলাকায় নাবালিকার বাড়িতে। কিন্তু তাঁর উপস্থিতি টের পেয়ে যান মেয়েটির বাড়ির লোক। তার পর মেয়েটির বাবা উসমান, ভাই দানিশ, কাকা সুলাইমান ও তাঁর ছেলে লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকেন আবদুলকে। আবদুলকে বাঁচাতে এলে মেয়েটিকেও দেওয়ালে ফেলে মারেন তাঁরা। সেখানেই মৃত্যু হয় ওই যুগলের।  

ঘটনা নিয়ে অ্যাডিশনাল সুপারিন্টেডেন্ট অব পুলিশ বিকাশচন্দ্র ত্রিপাঠী জানিয়েছেন, ওই যুগলের দেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।  মেয়ের বাবা, কাকা ও দুই ভাইকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। মৃত আবদুলের চারটি সন্তান রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: দেশে মৃত্যু ১০০ ছাড়াল, এক লাফে ৪ হাজার ছাড়াল আক্রান্তের সংখ্যা

আরও পড়ুন:  পড়ুয়ারা সত্যিই প্রদীপ বা মোমবাতি জ্বালাচ্ছে কি? ‘নজরদারি’ চলছে!

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন