ইন্টারনেটে খবরগুলো ঘুরছিল দিন দুয়েক আগে থেকে। এ বারের ‘অ্যাপল ইভেন্ট’-এ নাকি আইফোনের তিনটি নতুন সংস্করণ প্রকাশ করতে চলেছেন সংস্থার সিইও টিম কুক। ফাঁস হয়ে গিয়েছিল স্ক্রিনের সম্ভাব্য দৈর্ঘ্যও। তবু চমক আশা করেছিলেন অনেকেই। সংস্থার স্রষ্টা, প্রয়াত স্টিভ জোবস তো চমকই দিতেন ফি-বছর। অথচ ক্যালিফোর্নিয়ার কুপারটিনোয় তাঁর নামাঙ্কিত প্রেক্ষাগৃহে আজ দেখা গেল, ঠিক তিনটিই নতুন আইফোন প্রকাশ করলেন কুক ও তাঁর দলবল। মিলে গেল স্ক্রিনের দৈর্ঘ্য। নতুন গ্যাজেট নয়। আইফোন ও অ্যাপল ওয়াচেরই উন্নততর সংস্করণ আনল অ্যাপল। 


এল তিনটি আইফোন। আইফোন ১০এস (এক্সএস)— স্ক্রিনের দৈর্ঘ্য ৫.৮ ইঞ্চি। ৬.৫ ইঞ্চির পর্দার আইফোন ১০এস ম্যাক্স। সংস্থার সব চেয়ে বড় আকারের আইফোন এটাই। এবং তুলনায় সস্তা, উন্নততম এলসিডি ডিসপ্লের আইফোন ১০আর। তার ৬.১ ইঞ্চি পর্দা। অবশ্য সব ক’টি ফোনের পর্দাই ‘এন্ড টু এন্ড’ হওয়ায় আইফোন ১০আর-এর ডিসপ্লে আদপে আইফোন ৮ প্লাসের চেয়েও বড়। এবং এই প্রথম, এল ‘ডুয়াল সিম’ আইফোন। আইফোন ১০এস এবং ১০এস ম্যাক্স— দু’টিই ডুয়াল সিম তবে দু’টি সিমকার্ড ভরার বন্দোবস্ত থাকবে শুধু চিনে। অন্যান্য দেশের মডেলে একটি সাধারণ সিমকার্ড, অন্যটি হতে হবে ‘ই-সিম’।

 
১০এস এবং ১০এস ম্যাক্স, দু’টি ফোনই ‘লিকুইড-প্রুফ’। অ্যাপলের দাবি, বিয়ার ঢেলে পরীক্ষা করা হয়েছে। মেমরি ৫১২ জিবি। অ্যাপল ওয়াচের নয়া সংস্করণ ইসিজি-ও করে ফেলতে পারে। আইফোন ১০এস-এর দাম শুরু প্রায় ৯৪ হাজার টাকা থেকে। ১০এস ম্যাক্স ১ লক্ষ ৫ হাজার টাকা থেকে। ১০আর-এর দাম শুরু হচ্ছে ৭০ হাজার টাকা থেকে। প্রথম দু’টির প্রি-অর্ডার শুরু শুক্রবার। ১০আরের প্রি-অর্ডার শুরু ১৯ অক্টোবর।