Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জুন ২০২২ ই-পেপার

PRESENTS
CO-POWERED BY

Demat account: বিনিয়োগের বাজারে হাত পাকাতে প্রথমেই প্রয়োজন ডিম্যাট অ্যাকাউন্টের

বিনিয়োগের বাজারে প্রবেশের প্রথম শর্তই হল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে অবশ্যই ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

তন্ময় দাস
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ১৪:০৫

প্রতীকী ছবি।

বিনিয়োগের বাজারে ওঠা পড়া লেগেই থাকে। কখনই এই স্টক তো কখনও ওই বন্ড। একজন পাকা বিনিয়োগ বিশেষজ্ঞ সর্বদা খেয়াল রাখেন বাজারের উপরে। কিন্তু বিনিয়োগের বাজারে প্রবেশের প্রথম শর্তই হল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে অবশ্যই ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট হল, ডিম্যাটেরিয়ালাইজড অ্যাকাউন্টের সংক্ষিপ্ত নাম। এটি একটি অ্যাকাউন্ট যা ইলেকট্রনিক কৌশল ও আকারে আর্থিক সিকিওরিটি (ইক্যুয়িটি বা ঋণ) ধরে রাখে। ভারতে দু’টি ডিপোজিটরি সংস্থা, ন্যাশনাল সিকিওরিটিজ ডিপোজিটরি লিমিটেড এবং সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি সার্ভিসেস লিমিটেড এই ডিম্যাট অ্যাকাউন্টগুলিকে রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকে।

এই অ্যাকাউন্টগুলিতে অ্যাক্সেসের জন্য একটি ইন্টারনেট পাসওয়ার্ড এবং একটি লেনদেন পাসওয়ার্ডের প্রয়োজন হয়। এর পরে ‘সিকিওরিটিজ’ স্থানান্তর বা ক্রয় করা যেতে পারে। লেনদেন নিশ্চিত এবং সম্পূর্ণ হয়ে গেলে ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে সিকিওরিটিজের ক্রয় এবং বিক্রয় স্বয়ংক্রিয় ভাবে হয়ে যায়।

Advertisement

ভারত ইলেকট্রনিক সংরক্ষণের জন্য ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট গ্রহণ করেছে, যেখানে শেয়ার এবং সিকিওরিটিগুলি ইলেকট্রনিক ভাবে উপস্থাপন এবং রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। এই ভাবে কাগজের শেয়ারের সঙ্গে সম্পর্কিত সমস্যাগুলি এক নিমেষেই দূর হয়ে যায়। এটি শেয়ার স্থানান্তরের সময় কমাতেও সাহায্য করে।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।


ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট কী ভাবে খুলতে হবে:

প্রথমে ডিপোজিটরি পার্টিসিপ্যান্ট (ডিপি) সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজন। এর পরে যথাযথ ভাবে পূরণ করা একটি অ্যাকাউন্ট খোলার ফর্ম, কেওয়াইসি ফর্ম জমা দিতে হবে। এবং সেই সঙ্গে প্যান কার্ড, আবাসিক প্রমাণ, আইডি প্রুফ ও একটি পাসপোর্ট সাইজ ছবি জমা দিতে হবে। যাচাইকরণের জন্য সবকটির মূল কপি নিয়ে যাওয়া আবশ্যক। এর পরে একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে হবে, যেখানে একটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত সমস্ত নিয়ম, বিধান এবং অধিকার উল্লেখ রয়েছে। মনে রাখবেন, এই ডক্যুমেন্ট বা তথ্যগুলি অত্যন্ত সাবধানে পড়া প্রয়োজন এবং সমস্ত সন্দেহ দূর করতে দ্বিধাবোধ না করে প্রয়োজন অনুযায়ী প্রশ্ন করা দরকার। যখন এটি ডিপিতে জমা দেওয়া হয়, তখন এটি এক জন অনুমোদিত ব্যক্তির দ্বারা স্বাক্ষরিত হবে এবং এর একটি অনুলিপি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে দেওয়া হবে। অ্যাকাউন্ট খোলা হলে, ডিপি থেকে একটি অনন্য ক্লায়েন্ট আইডি পাওয়া যাবে। এটি অন্য বিবরণ-সহ অনলাইনে ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে অ্যাক্সেস পেতে সহায়তা করে। ডিপি দ্বারা নির্দেশনা একটি স্লিপও দেওয়া হবে, যা স্থানান্তর, ক্রয় ইত্যাদির মতো ডিপোজিটরি পরিষেবাগুলির উপভোগ করার সময় ব্যবহার করতে হবে।

মনে রাখা দরকার যে, একটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে শেয়ার বা আর্থিক সিকিউরিটিজগুলির কোনও ‘ন্যূনতম ব্যালেন্স’ প্রয়োজন হয় না। তা ছাড়াও, একটি একক প্যানের সঙ্গে সংযুক্ত একাধিক ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট রাখা যেতে পারে। যদিও সেই ক্ষেত্রে একই ডিপি ব্যবহার করা যাবে না।

কী ভাবে অনলাইনে একটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খোলা যেতে পারে:

যে কোনও ডিপির সঙ্গে একটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খোলার অনুরোধ অনলাইনেও করা যেতে পারে। কিন্তু নির্বাচিত ডিপি-র ওয়েবসাইট তার আগে দেখে নেওয়া দরকার। এর পর ‘ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলুন’ ট্যাবে ক্লিক করে নাম, ই-মেল আইডি, মোবাইল নম্বর, এককালীন পাসওয়ার্ড (ওটিপি), বসবাসের জায়গা ইত্যাদি জমা দিতে হবে। এই ভাবেই পরবর্তী আরও কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করলে এই ধরনের অ্যাকাউন্ট অনলাইনেও সহজে খোলা যেতে পারে।

ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট কী ভাবে কাজ করে?

একটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্টের কাজ করার সঙ্গে চারটি বিষয় জড়িত থাকে।

সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি: জাতীয় সিকিউরিটিজ ডিপোজিটরি লিমিটেড (এনএসডিএল) এবং সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি সার্ভিসেস লিমিটেড (সিডিএসএল) হল ভারতের দু’টি ডিপোজিটরি, যা সমস্ত ডিম্যাট অ্যাকাউন্টগুলিকে রক্ষণাবেক্ষণ করে। এই ডিপোজিটরিগুলি একটি ব্যাঙ্কের মতোই আপনার শেয়ার সার্টিফিকেট এবং অন্যান্য আর্থিক উপকরণগুলির সমস্ত তথ্য নিজের কাছে রাখে৷

ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন নম্বর: প্রতিটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে একটি অনন্য শনাক্তকরণ নম্বর বা একটি ইউআইডি বরাদ্দ করা হয়ে থাকে। এই নম্বর অনলাইন ট্রেডিংয়ের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়। এই নম্বরটি কোম্পানি এবং স্টক এক্সচেঞ্জকে আপনাকে শনাক্ত করতে এবং আপনার অ্যাকাউন্টে শেয়ার ক্রেডিট করতে সহায়তা করে।

ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারী: ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারী বা ডিপিগুলি কেন্দ্রীয় ডিপোজিটরিতে তথ্য সরবরাহ করে এবং কেন্দ্রীয় ডিপোজিটরি এবং এর মধ্যে মধ্যস্থতাকারী হিসাবে কাজ করে বিনিয়োগকারী একটি ডিপি। এটি কোনও ব্যাঙ্ক, দালাল বা ডিম্যাট পরিষেবা দেওয়ার ক্ষমতাপ্রাপ্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে পারে। কেন্দ্রীয় ডিপোজিটরিতে ইউআইডি-র অ্যাক্সেস পেতে আপনাকে একটি ডিপি-সহ একটি ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট বা একটি উপকারী মালিকের অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

পোর্টফোলিওর বিবরণ: আপনি যখনই আপনার ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট অ্যাক্সেস করবেন তখন আপনি আপনার পোর্টফোলিওর সমস্ত বিবরণ দেখতে পাবেন। এই বিবরণগুলি প্রতিটি লেনদেনের পরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট হয়, তা কেনা বা বিক্রি করা—যা-ই হোক।

ডিম্যাট অ্যাকাউন্টের সুবিধা কী?

শেয়ার বাজারে যে কোনও বিনিয়োগের জন্য ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট আবশ্যিক। এটি অত্যন্ত সুবিধাজনক এবং কাজ করা সহজ। এর মাধ্যমে কাগজবিহীন লেনদেন সম্ভব। আপনার সমস্ত বিনিয়োগের জন্য একক মনোনীত ব্যক্তির ক্ষেত্রে মনোনয়নের প্রয়োজনীয়তাগুলিও সহজে সম্পন্ন করা যায় এই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে। শুধুমাত্র তাই নয়, কোনও বিনিয়োগকারী, অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞ বিশ্লেষকদের দ্বারা প্রদত্ত একটি বিশদ বিশ্লেষণ এবং দরকারি স্টক-সম্পর্কিত সুপারিশ পেতে পারেন এর মাধ্যমে। পাশাপাশি একাধিক স্টক ব্রোকারদের দেওয়া হাই-টেক ট্রেডিং পরিষেবা এবং প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে ট্রেড সম্পূর্ণ করতে পারা যায় এই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে।

Advertisement