• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

খেলা

শুভমানের ফিল্ডিংয়ের ভিডিয়োয় লভ ইমোজি সচিনকন্যার, তবে কি...

শেয়ার করুন
১০ sara and shubman
জন্ম থেকেই সঙ্গী সেলেব-পরিচয়। সেলেবকিড হিসেবে সারা তেন্ডুলকর কাটিয়ে দিলেন ২৩ বসন্ত। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর জন্মদিনের ছবি ঘিরে উচ্ছ্বসিত অনুরাগীরা। অবশ্য এটাই প্রথম নয়। সচিনকন্যা বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং। সম্প্রতি ক্রিকেটার শুভমান গিলের সঙ্গে তাঁর প্রেমের জল্পনায় বিভোর নেটাগরিকরা।
১০ shubman and sara
পঞ্জাবের তরুণ শুভমান গিল কেকেআর-এর ব্যাটিং লাইন আপের অন্যতম ভরসা। আইপিএল-এ দলের ওপেনার তিনি। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে দলের প্রথম ম্যাচে তিনি বড় রান করতে ব্যর্থ হন। তবে ফিল্ডিংয়ে তিনি মাঠ জুড়ে ছিলেন অসম্ভব ক্ষিপ্র।
১০ shubman
২১ বছর বয়সি শুভমানের অনবদ্য ফিল্ডিংয়ের এক ঝলক সারা শেয়ার করেছিলেন ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে। ছবির সঙ্গে সারা দিয়েছিলেন ‘লভ’ ইমোজি। তাঁর এই প্রতিক্রিয়া দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেটে।
১০ sara
সারার এই হৃদয় ইমোজি-সহ প্রতিক্রিয়া আরও গভীর করেছে শুভমানের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ঘিরে নেটাগরিকদের জল্পনা কল্পনা। কারণ এর আগেও শুভমানের পোস্টে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন সারা। সেইসঙ্গে সারার পোস্টেও বিভিন্ন সময়ে দেখা গিয়েছে শুভমানের প্রতিক্রিয়া।
১০ hardik
এই প্রসঙ্গে ভাইরাল হয়েছে হার্দিক পাণ্ড্যর পুরনো একটি পোস্ট। শুভমান গাড়ি কেনার পরে সেই পোস্ট করেছিলেন হার্দিক। নতুন গাড়ির সামনে শুভমানের ছবি নীচে আরও অনেকের সঙ্গে শুভেচ্ছা জানান সারা-ও। সঙ্গে হৃদয়ের ইমোজি।
১০ sara
সারার শুভেচ্ছাবার্তার নীচে শুভমানের ধন্যবাদের পাশেও ঝলমল করছে ‘লভ ইমোজি’। সেখানেই রসিকতা করে ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা দিয়েছেন হার্দিক।
১০ shubman and sara
তবে শুভমান বা সারা, দু’জনের কেউ এখনও তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে কিছু বলেননি। গুঞ্জন সীমাবদ্ধ সোশ্যাল মিডিয়াতেই। তবে যে ম্যাচে শুভনানের ফিল্ডিং নিয়ে সারা উচ্ছ্বসিত, সেই ম্যাচে কিন্তু কেকেআর-এর শেষরক্ষা হয়নি।
১০ shubman
আগে ব্যাট করে কলকাতার সামনে ২০ ওভারে ১৯৬ রানের টার্গেট রেখেছিল মুম্বই। কিন্তু লক্ষ্যের ৪৯ রান আগেই থেমে যায় কলাকাতার দৌড়। ১১ বলে মাত্র ৭ রান করে আউট হন শুভমান।
১০ shubman
অনূর্ধ্ব ১৯ জাতীয় দলে শুভমানের পারফরম্যান্স উল্লেখযোগ্য। ২০১৯ সালে সর্বকনিষ্ঠ ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তিনি দ্বিশতরান করেন। জাতীয় দলে জায়গা পাওয়ার জন্য আইপিএল-এ ভাল খেলা তাঁর কাছে গুরুত্বপূর্ণ।
১০১০ sara
অন্য দিকে, মুম্বইয়ের স্কুল থেকে পাশ করার পরে সারা লন্ডনে যান উচ্চশিক্ষার জন্য। ইউনিভার্সিটি কলেজ অব লন্ডন থেকে মেডিসিনে ডিগ্রি নিয়ে দেশে ফিরেছেন সচিন-অঞ্জলির একমাত্র মেয়ে।

Advertisement

Advertisement

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
বাছাই খবর
আরও পড়ুন