• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

খেলা

সিন্ধুর সোনা থেকে দ্যুতির সমকামী সম্পর্কের বিতর্ক: খেলার মাঠে কেমন কাটল ২০১৯

শেয়ার করুন
২৫ 1
স্বপ্নপূরণের উচ্ছ্বাস এবং স্বপ্নভঙ্গের ব্যর্থতা। ২০১৯-এ দুই-ই হাত ধরাধরি করে চলেছে ভারতীয় ক্রীড়াদুনিয়ায়। আসুন, দেখে নিই ঘরে-বাইরে খেলার মাঠে সব মিলিয়ে ২০১৯ কেমন গেল ভারতের। কারা স্পর্শ করলেন প্রত্যাশার শিখর। কারাই বা ব্যর্থ হলেন।
২৫ 2
বিশ্বচ্যাম্পিয়ন সিন্ধু : প্রথম ভারতীয় হিসেবে বিশ্ব ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জিতলেন পি ভি সিন্ধু। অগস্টে সুইৎজারল্যান্ডের বাজেলে ফাইনালে তিনি ২১-৭, ২১-৭ হারান জাপানের নজোমি ওকুহারাকে। পুরুষদের বিভাগে ১৯৮৩ সালে প্রকাশ পাড়ুকোনের পরে বাজ়েলেই দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে বি সাই প্রণীত জেতেন ব্রোঞ্জ।
২৫ 3
কোহালিয়ানা : সব ফর্ম্যাট মিলিয়ে ২০১৯-এর সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ফের বিরাট কোহালি। তাঁর রানসংখ্যা ২৪৫৫। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন রোহিত শর্মা। ২৪৪২ রানে বছর শেষ করেন তিনি। এই নিয়ে টানা চার বছর সব ফর্ম্যাট মিলিয়ে সর্বোচ্চ রানের মালিক হওয়ার কৃতিত্ব দেখালেন ভারতীয় অধিনায়ক।
২৫ 4
বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ : সিএবি প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সবাইকে চমকে দিয়ে ভারতীয় বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। দ্বিতীয় প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে এই দায়িত্ব নেন তিনি। ইডেনে ভারতের প্রথম দিনরাতের টেস্ট আয়োজিত হয় সৌরভের আমলে।
২৫ 5
অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জয় : বিরাট কোহালির নেতৃত্বে বছরের শুরুতেই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথম টেস্ট সিরিজ জেতে ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে ২-১ হারায় তারা। টেস্টের র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে থেকেই বছর শেষ করল বিরাট-বাহিনী। টেস্ট বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের তালিকাতেও শীর্ষে ভারত।
২৫ 6
লক্ষ্যের লক্ষ্যভেদ : ব্যাডমিন্টনে পাঁচটি আন্তর্জাতিক ট্রফি জয় লক্ষ্য সেনের। শুরু করেছিলেন বেলজিয়াম আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় সেরা হয়ে। এর পরে ডাচ ওপেন, সারলোরলাক্স সুপার ১০০, স্কটিশ ওপেন এবং মরসুম শেষ করেন বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক চ্যালেঞ্জারে সেরার ট্রফি জিতে।
২৫ 7
জুটিতে লুটি : সাত্ত্বিক সাইরাজ রানকিরেড্ডি ও চিরাগ শেট্টি প্রথম ভারতীয় ব্যাডমিন্টন জুটি হিসেবে সুপার ৫০০ পর্যায়ের প্রতিযোগিতা জেতেন জুলাইয়ে, তাইল্যান্ড ওপেনে। এর পরে ফরাসি ওপেন সুপার ৭৫০ প্রতিযোগিতার ফাইনালেও ওঠেন। বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে উঠে আসেন প্রথম দশে।
২৫ 8
হাম্পির নজর : মা হওয়ার জন্য দাবা প্রতিযোগিতা থেকে দু’বছরের বিরতি থেকে ফিরেই র‌্যাপিড দাবায় বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন কনেরু হাম্পি। বিশ্বনাথন আনন্দের পরে দ্বিতীয় ভারতীয় দাবাড়ু হিসেবে এই কৃতিত্ব তাঁর।
২৫ 9
মেয়েরাই বাংলার মুখ : গত বছরে আন্তর্জাতিক স্তরে বাংলার ছেলেরা ব্যর্থ হলেও অন্তত পাঁচ জন মেয়ে সফল হয়েছেন। ভারোত্তোলক রাখি হালদার, অ্যাথলিট আভা খাটুয়া, শুটার মেহুলি ঘোষ, টেবল টেনিসের সুতীর্থা মুখোপাধ্যায় এবং ঐহিকা মুখোপাধ্যায় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে সফল হয়ে পদক জিতেছেন। এঁদের মধ্যে রাখি টোকিয়ো অলিম্পিক্সের নামার যোগ্যতা অর্জনের পথে। কমনওয়েলথ চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা ছাড়াও কয়েকদিন আগে জোড়া রেকর্ড গড়ে কাতার আন্তর্জাতিক ভারোত্তলনে ব্রোঞ্জ জিতেছেন।
১০২৫ 10
দিনরাতের টেস্ট : নভেম্বরে বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ভারতের মাটিতে প্রথম দিনরাতের টেস্ট আয়োজিত হয় ইডেনে। সেই টেস্টে বাংলাদেশকে আড়াই দিনেই উড়িয়ে দেয় ভারত। এক ইনিংস ও ৪৬ রানে দিনরাতের টেস্ট ও ২-০ সিরিজ জিতে বিরাট কোহালিরা স্মরণীয় করে রাখেন এই বিশেষ মুহূর্ত।
১১২৫ 11
মহিলা ফুটবলে নজির : নেপালকে ৩-১ হারিয়ে টানা পাঁচ বার চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন ভারতীয় মহিলা ফুটবল দল। দক্ষিণ এশীয় গেমসে সোনা জয়।
১২২৫ 12
অপ্রতিরোধ্য যুব দল : ২০২০-তে অনূর্ধ্ব-১৬ এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপের মূল পর্বে। অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে চ্যাম্পিয়ন।
১৩২৫ 13
সুমিতের চমক : যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে পুরুষদের সিঙ্গলসের প্রথম রাউন্ডে গ্র্যান্ড স্ল্যামে স্মরণীয় অভিষেক ঘটালেন ভারতের সুমিত নাগাল। আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে কিংবদন্তি রজার ফেডেরারের বিরুদ্ধে লড়াই করে হারলেও প্রথম সেট জিতে চমক সৃষ্টি করলেন। ম্যাচের ফল সুমিতের পক্ষে ৬-৪, ১-৬, ২-৬, ৪-৬।
১৪২৫ 14
দীপকের দাপট : ১৮ বছর পরে কুস্তির বিশ্ব জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে সোনা জিতে নতুন নজির গড়লেন ভারতের দীপক পুনিয়া। এস্তোনিয়ায় আয়োজিত প্রতিযোগিতায় দীপক হারালেন রাশিয়ার আলিক শেবজ়ুকভকে। শুধু তাই নয়, সিনিয়র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে অভিষেকেই এর পরে তিনি রুপো জেতেন। পান অলিম্পিক্সে নামার যোগ্যতা। পাশাপাশি বজরং পুনিয়া পদক জিতে পেলেন টোকিয়োর ছাড়পত্র।
১৫২৫ 15
সোনার মেয়ে মনু : একই বছরে আন্তর্জাতিক শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশনের চারটি বিশ্বকাপেই ১০মিটার এয়ার পিস্তল বিভাগের মিক্সড টিম ইভেন্টে সোনা জিতলেন মনু ভাকের। একই বিভাগে বিশ্বকাপ ফাইনালেও ব্যক্তিগত সোনাও এনেছেন হরিয়ানার মেয়ে।
১৬২৫ 16
দুরন্ত অমিত : বছরটা দুর্দান্ত কাটল ভারতের বক্সার অমিত পঙ্ঘালের। প্রথম ভারতীয় হিসেবে বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে রুপো পেয়ে ইতিহাস তৈরি করেন অমিত। তার আগে বছরের শুরুতে এশীয় বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে সোনা জিতে ফিরেছিলেন অমিত।
১৭২৫ 17
সুনীল গুরপ্রীতের কীর্তি : ভারতীয় ফুটবলে অবদানের জন্য পদ্মশ্রী পেলেন সুনীল ছেত্রী। আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় প্রথম দশে ভারত অধিনায়ক। অর্জুন হলেন গুরপ্রীত সিংহ সাঁধু।
১৮২৫ 18
বিনেশের নজির : কাজাখস্তানে বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ব্রোঞ্জ নিয়ে দেশে ফিরলেন হরিয়ানার কুস্তিগীর বিনেশ ফোগত। সেই সঙ্গে পেয়ে গেলেন টোকিয়ো ২০২০ অলিম্পিক্সের ছাড়পত্রও।
১৯২৫ 19
দীপাদের অনিশ্চয়তা: সাফল্যের পাশাপাশি খেলার মাঠে এসেছে ব্যর্থতাও। চোটের জন্য প্রশ্নের মুখে দীপা কর্মকারের জিমন্যাস্টিক্স জীবন। জাকার্তা এশিয়াডে হেপ্টাথলনে সোনাজয়ী অ্যাথলিট স্বপ্না বর্মন চোট সারিয়ে এখনও ছন্দে ফেরেননি।
২০২৫ 20
বিশ্বকাপে হার : ২০১৯ বিশ্বকাপে ভারতের পারফরম্যান্স আশা জাগিয়েছিল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার। কিন্তু সেমিফাইনালে সব অঙ্ক পাল্টে দিলেন ট্রেন্ট বোল্ড, ম্যাট হেনরিরা। ২৪ রানে চার উইকেট হারানোর পরে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ভারত। ফাইনালে যাওয়ার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায় ম্যাঞ্চেস্টারে।
২১২৫ 21
ফুটবলে আঁধার : আই লিগ থেকে আইএসএল— ব্যর্থ কলকাতার ক্লাবগুলো।
২২২৫ 22
সাফল্য-ব্যর্থতার হাত ধরে এসেছে বিতর্কও। নিজের সমকামী সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে জানিয়েছেন দ্যুতি চন্দ। যা নিয়ে আলোড়ন পড়ে ভারতীয় ক্রীড়া জগতে। এই সাহসী ঘোষণার ফলে পারিবারিক সমস্যারও সম্মুখীন হতে হয় এই ভারতীয় স্প্রিন্টারকে।
২৩২৫ 23
নির্বাসিত সীমা : ডোপিংয়ের কারণে চার বছরের জন্য নির্বাসিত হলেন মহিলা ভারোত্তোলক সীমা। কমনওয়েলথ গেমসে রুপোজয়ীর মূত্রের নমুনায় নিষিদ্ধ ওযুধের উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া যায়।
২৪২৫ 24
বিচারে বিশ্বকাপ : ২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে সব চেয়ে বেশি বাউন্ডারির বিচারে ইংল্যান্ডের হাতে ট্রফি তুলে দেওয়া নিয়ে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছিল ক্রিকেটবিশ্বে। ম্যাচ টাই হওয়ার পরে সুপার ওভারেও একই রান করে দুই দল। তাই দুই ইনিংস মিলিয়ে সব চেয়ে বেশি চার ও ছয়ের বিচারে চ্যাম্পিয়ন হয় ইংল্যান্ড।
২৫২৫ 25
হার্দিক-রাহুল বিতর্ক : কর্ণ জোহরের টিভি শো-এ গিয়ে মহিলাদের সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করে ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়েন কে এল রাহুল ও হার্দিক পাণ্ড্য। তাঁদের মন্তব্যের বিরুদ্ধে ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পরে ক্ষমাও চেয়ে নেন দুই ক্রিকেটার।

Advertisement

Advertisement

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
বাছাই খবর
আরও পড়ুন