Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

টুকরো খবর

২৪ মার্চ ২০১৪ ০২:২৫

কচ্ছপ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা • আসানসোল

পাচার হওয়ার সময়ে কয়েক’শো কচ্ছপ ও বেশ কিছু সিরাপ বাজেয়াপ্ত করল এনফোর্সমেন্ট বিভাগের আসানসোল শাখা। পশ্চিমবঙ্গ ঝাড়খণ্ড সীমানার ডুবুরডিহি চেকপোস্টের কাছে রবিবার বিশেষ অভিযান চালিয়ে প্রায় ৪১০টি কচ্ছপ ও ২৫ বস্তা সিরাপ ধরা হয়। এনফোর্সমেন্ট বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, জিনিসগুলি ম্যটাডরে চাপিয়ে ঝাড়খণ্ড থেকে পশ্চিমবঙ্গে পাচার করা হচ্ছিল। ম্যাটাডরটি আটক করা হলেও চালক, খালাসি পালায়। বনকর্মীরা কচ্ছপগুলি বরাকর নদে ছেড়ে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement

হাতি হত্যার তদন্ত বক্সায়

নিজস্ব সংবাদদাতা • জলপাইগুড়ি

বক্সার জঙ্গলে হাতি-হননের তদন্ত ভার সিআইডির হাতে তুলে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে বন দফতর। এ দিন ঘটনাস্থলে গিয়ে বনকর্তা প্রদীপ ব্যাস বলেন, “নজরদারিতে গাফিলতি রয়েছে। চোরাশিকারিদের আনাগোনারও আগাম খবর পাওয়া যাচ্ছে না।” এই অবস্থায় সিআইডি-র উপরেই ভরসা রাখতে চাইছেন বনকর্তাদের একাংশ।

হাতির হানায় জখম বালক

কলাইকুণ্ডা থেকে বেরিয়ে যাওয়া হাতির হানায় জখম হল এক বালক। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তিনটি বাড়িও। শনিবার রাত থেকে রবিবার সকাল পর্যন্ত কেশিয়াড়ির খাজরা গ্রাম পঞ্চায়েতের কুমারডুবি গ্রামের ঘটনা। জখম বছর এগারোর রামপদ পালকে প্রথমে খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাকে মেদিনীপুর মেডিক্যালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এলাকায় রয়েছেন বেলদা, হিজলি ও কলাইকুণ্ডা রেঞ্জের বনকর্মীরা। স্থানীয় ও বন দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার খড়্গপুরের কলাইকুণ্ডা বিমানঘাঁটিতে ঢুকে পড়ে দু’টি পূর্ণবয়স্ক হাতি। ওই হাতিগুলিকে রাত পর্যন্ত চেষ্টা করে বনকর্মীরা বিমানঘাঁটির বাইরে বের করেন। তবে এলাকা ছাড়েনি হাতি দু’টি। সেখান থেকে ধীরে ধীরে হিজলি রেঞ্জের দিকে যেতে শুরু করে তারা। শনিবার সন্ধ্যায় হঠাৎই কেলেঘাই নদী ঘেঁষা কুমারডুবি গ্রামে ঢুকে পড়ে হাতি দু’টি। হাতি দেখে স্থানীয়রা আতঙ্কে ছোটাছুটি করতে থাকেন স্থানীয়রা। পৌঁছায় বন দফতরের কর্মীরা। এর পর রাতে হাতির তাণ্ডবে ভেঙে পড়ে ক’য়েকটি মাটির বাড়ি। একটি মাটির বাড়ির তলায় চাপা পড়ে রামপদ। হুলাপার্টিরা হাতিটিকে সকালের দিকে ল্যাঙামারা জঙ্গলের দিকে নিয়ে যান।

ফের গন্ডার শিকার

এক সপ্তাহের মধ্যে তিনটি গন্ডারের চোরাশিকার হল কাজিরাঙায়। প্রতিটি ঘটনাই ঘটেছে কোহরা রেঞ্জে। বন দফতর সূত্রের খবর, গত রাতে কোহরার উত্তর দিকে বনরক্ষীরা গুলির শব্দ শোনেন। শুরু হয় তল্লাশি। ব্রহ্মপুত্র পার হওয়ার সময় আরিমুড়া চাপোড়ির কাছে এক দল চোরাশিকারিকে দেখতে পান বনরক্ষীরা। দু’পক্ষে গুলি বিনিময় শুরু হয়। বেগতিক দেখে শিকারিরা পালায়। বনরক্ষীরা সন্দেহ করছেন, দু’জন শিকারি গুলিবিদ্ধ হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি রক্তমাখা গন্ডারের খড়্গ পাওয়া যায়। আজ সকালে গন্ডারটির দেহ উদ্ধার হয়।

সভায় ভঙ্গ শব্দবিধি

সন্তোষপুরে সুবোধ পার্কে সিপিএমের কর্মী-সম্মেলনের শব্দবিধি ভাঙার অভিযোগ তুললেন নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিরা। সিপিএমের যাদবপুর জোনাল কমিটি জানায়, রবিবার সন্ধ্যায় তিন ব্যক্তি এসে কমিশনের অফিসার হিসেবে নিজেদের পরিচয় দিয়ে এই অভিযোগ করেন। তাঁরা কমিশনের পরিচয়পত্র দেখাতে পারেননি। তবে রাজ্য সরকারের পরিচয়পত্র দেখান। উত্তেজনা ছড়ায়। জেলা নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর, কমিশনের টহলদার অফিসারেরাই ওখানে গিয়ে শব্দের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে অনুরোধ করেন। এক কমিশন-কর্তা বলেন, “সব সরকারি অফিসারকে কমিশনের নিয়োগপত্র দেওয়া হয়েছে। ওটাই কমিশনের পরিচয়পত্র। সব অফিসারকে তা সঙ্গে রাখতে বলা হয়েছে।”



যুগলে। শহরের এক বাগানে। ছবি: দেবাশিস রায়।



Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement