জাকার্তা এশিয়ান গেমসে সোনা জেতার পরে স্বপ্না বর্মণ স্বপ্ন দেখেছিলেন টোকিয়ো অলিম্পিক্সে নামার। কিন্তু তিনি বুঝে গিয়েছেন, সেই সুযোগ পাওয়া কঠিন। শুক্রবার তিনি বলেছেন, ‘‘সব অ্যাথলিটেরই স্বপ্ন থাকে অলিম্পিক্সে নামার। আমি জানি হেপ্টাথলনের জন্য যে যোগ্যতামান রয়েছে, সেটা ছোঁয়া কঠিন। আমি সেরা পারফরম্যান্স দিয়ে চেষ্টা করব সুযোগ পাওয়ার।’’

চোটের জন্য এ বছর আর কোনও প্রতিযোগিতায় নামছেন না জলপাইগুড়ির মেয়ে। বলছিলেন, ‘‘আমার সাতটি ইভেন্ট। প্রত্যেকটিতে উন্নতি করতে হবে। যোগ্যতামান পেরোতে হলে আরও উন্নতি দরকার।’’ আন্তর্জাতিক অ্যাথলেটিক্স সংস্থা স্বপ্নার ইভেন্টের জন্য যে যোগ্যতামান রেখেছে, তার থেকে অনেক দূরে রয়েছেন সুভাষ সরকারের ছাত্রী। টোকিয়োতে নামতে হলে স্বপ্নাকে করতে হবে ৬৪২০ পয়েন্ট। রিয়োতে যা ছিল ৬২০০। অর্থাৎ ২২০  পয়েন্ট বেশি। স্বপ্না এখনও পর্যন্ত জীবনের সেরা  পয়েন্ট করেছেন ৬০২৬। অলিম্পিক্সে নামার যোগ্যতা পেতে ২০১৯-এর মে মাস থেকে ২০২০-র জুন পর্যন্ত হওয়া যে কোনও আন্তর্জাতিক অ্যাথলেটিক্স সংস্থার নথিভুক্ত প্রতিযোগিতায় নেমে সফল হতে হবে স্বপ্নাকে। ‘‘যে যোগ্যতামান ধরা হয়েছে, এশিয়ার যে কোনও অ্যাথলিটের পক্ষে তা ছোঁয়া কঠিন। তবুও চেষ্টা করব,’’ বলেন স্বপ্না।