ফর্ম ফিরে পেলেন অজিঙ্ক রাহানে। বৃহস্পতিবার অ্যান্টিগায় ২৫ রানে তিন উইকেট পড়ার পরে ক্রিজে আসেন ভারতের সহ-অধিনায়ক। চা-বিরতি পর্যন্ত তিনি অপরাজিত ৫০ রানে। তাঁর সঙ্গেই ক্রিজে রয়েছেন হনুমা বিহারী। 

বৃহস্পতিবার টস হওয়ার আগেই অ্যান্টিগার বাইশ গজ নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠে পড়েছিল। কেউ কেউ বলছিলেন, এখানে ব্যাট করাটা খুব সোজা হবে না। তার উপরে টসের আধ ঘণ্টা আগে বৃষ্টি নামায় উইকেট কিছুটা স্যাঁতসেঁতেও হয়ে গিয়েছিল। নির্দিষ্ট সময়ের মিনিট পনেরো পরে খেলা শুরু হয়। 
এই অবস্থায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার টস জিতে ফিল্ডিং নিয়েছিলেন। এবং ক্যারিবিয়ান পেস আক্রমণ প্রথম ঘণ্টায় বুঝিয়ে দেয়, তাদের অধিনায়ক ভুল সিদ্ধান্ত নেননি। মাত্র আট ওভারের মধ্যেই বিরাট কোহালি-সহ ফিরে যান ভারতের প্রথম তিন  ব্যাটসম্যান। ওই সময় স্কোর ছিল তিন উইকেটে ২৫। সেখান থেকে লড়াই চালান কে এল রাহুল এবং রাহানে। রাহুল যদিও ৪৪ রান করে ফিরে যান। লেগস্টাম্পের বাইরের বলে গ্লান্স করে এক রান কুড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন রাহুল। কিন্তু রস্টন চেজের অফস্পিন একটু বেশি ঘোরায় তাঁর ব্যাট ছুঁয়ে উইকেটকিপার শেই হোপের হাতে চলে যায়। 

অ্যান্টিগার উইকেটে বাউন্স আছে। কোহালি এই বাউন্সেরই শিকার। শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের অফস্টাম্পের বাইরের বল কোহালির প্রায় কাঁধ সমান উচ্চতায় চলে আসে। সেখান থেকে বলটা স্টিয়ার করতে গিয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক। কিন্তু বল চলে যায় গালিতে দাঁড়ানো শামার্থ ব্রুকসের হাতে। তার আগে কেমার রোচের বলে ফিরে গিয়েছিলেন ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়াল এবং তিন নম্বরে নামা চেতেশ্বর পুজারা। মায়াঙ্কের ব্যাট ছুঁয়ে বল চলে যায় উইকেটকিপারের হাতে। আম্পায়ার আউট দেননি। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজ ডিআরএস নিলে দেখা যায় বল মায়াঙ্কের ব্যাটে লেগেছে। পুজারার ক্ষেত্রে অবশ্য তৃতীয় আম্পায়ারের কাছে যাওয়ার কোনও প্রশ্নই ছিল না। বল ভিতরে আসবে ধরে নিয়ে ডিফেন্স করেছিলেন পুজারা। কিন্তু তিনি যতটা ভেবেছিলেন, বল ততটা ভিতরে আসেনি। ব্যাটের মাঝে না লেগে তাই কানা ছুঁয়ে উইকেটকিপারের হাতে চলে যায়। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে এই ম্যাচ দিয়ে ভারতের টেস্ট বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ শুরু হয়েছে। যে ম্যাচে ছয় ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলছেন কোহালিরা। তবে রোহিত শর্মা বা অশ্বিনের মধ্যে কেউ প্রথম এগারোয় নেই। রোহিতের বদলে খেলানো হচ্ছে হনুমা বিহারীকে। তার কারণ বিহারী অফস্পিন বলও করতে পারেন। এক মাত্র স্পিনার রবীন্দ্র জাডেজা। ভারতের তিন পেসার হলেন, ইশান্ত শর্মা, মহম্মদ শামি এবং যশপ্রীত বুমরা। সুযোগ পাননি ঋদ্ধিমান সাহাও। প্রত্যাশা মতোই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলছেন ঋষভ পন্থ। অশ্বিন প্রথম টেস্টে সুযোগ না পাওয়ায় প্রশ্ন তোলেন সুনীল গাওস্কর।