• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সাইনার আজ আসল প্রতিপক্ষ রিওর গ্যালারি

Saina
গেমস ভিলেজে জকোভিচের সঙ্গে সাইনা। ছবি: টুইটার

অলিম্পিক্সের পাঁচ দিন গড়িয়ে গিয়েছে। রিওতে ভারতের পদক-ঝুলি এখনও শূন্য। অলিম্পিক্সে দেশের ১১৬ বছরের ইতিহাসে বৃহত্তম দল পাঠানোর পরেও। এমন একটা গুমোট বাতাবরণে বৃহস্পতিবার অভিযানে নামছেন ভারতের আর এক পদক সম্ভাবনাময়। চার বছর আগে লন্ডন গেমসে ব্রোঞ্জজয়ী ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেহওয়াল। বিশ্বের প্রাক্তন এক নম্বর হায়দরাবাদি কন্যার চেয়ে এই মুহূর্তে রিওর গেমস ভিলেজে হয়তো আর কোনও ভারতীয় ক্রীড়াবিদের পক্ষে বেশি অনুভব করা সম্ভব নয় পরিস্থিতির গুরুত্ব। 

তিনি সাইনা প্রথম রাউন্ডে যে লোহেনি ভিসেন্তে-র বিরুদ্ধে খেলবেন, সেই অনামী মেয়ে যতটা না ভারতীয়ের চ্যালেঞ্জ হয়তো হয়ে উঠবেন, তার চেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠতে পারে ম্যাচের পরিবেশ! রিওসেন্ট্রো প্যাভিলিয়নের পুরো গ্যালারি সাইনার বিরুদ্ধে গলা ফাটালে অবাক হওয়ার কিছু নেই। ভিসেন্তে যে ব্রাজিলের ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার। ২০১৬ অলিম্পিক্স উদ্যোক্তা দেশের মেয়ে। পঞ্চম বাছাই সাইনা হয়তো সে জন্য তাঁর তৃতীয় অলিম্পিক্স অভিযানে নামার আগের দিন বলেছেন, ‘‘আমার কাছে প্রতিটা টুর্নামেন্ট যে ভাবে আসে, ব্যাপারটা আমি সে ভাবে নিই। এটা অলিম্পিক্স টুর্নামেন্ট। আমি তাই এটাকে সবচেয়ে পজিটিভ ভাবে নিয়েছি। সে ভাবেই নিজের খেলায় ফোকাস করছি। আমি মনে করি, যে দিন পুরো একশো ভাগ ফিট থাকব, সে দিন বিশ্বের যে কাউকে হারাতে পারি।’’ যিনি প্রথম হার্ডল টপকালে প্রি কোয়ার্টার থেকেই সার্কিটের পরিচিতদের মুখোমুখি হবেন। শেষ ষোলোয় সাইনার সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ তাইল্যান্ডের বুরানা। কোয়ার্টার ফাইনালে গত বারের সোনাজয়ী লি জুয়েরুই। চিনের প্রাচীর ডিঙোলে শেষ চারে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ক্যারোলিনা মারিন। সোজা কথায় রিওতে কঠিন ড্র সাইনার অপেক্ষায়।

মাত্র আঠারোয় বেজিংয়ে তাঁর অলিম্পিক্স কেরিয়ার শুরু করা সাইনা এখন ছাব্বিশ। অল ইংল্যান্ড আর বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ ছাড়া আর সব বড় টুর্নামেন্টেই পদকের স্বাদ পেয়েছেন। ব্যাডমিন্টনের ঐতিহাসিক আর সর্বোচ্চ মঞ্চ দু’টোতেও ফাইনাল খেলার গৌরব আছে তাঁর। এবং সেটা গত বছরই। তার পরে গোড়ালির লাগাতার চোট সমস্যায় সময়টা খারাপ গেলেও এ বছর জুনে সিডনিতে অস্ট্রেলীয় ওপেন চ্যাম্পিয়ন হন দুই প্রাক্তন বিশ্বসেরা ইন্তানন এবং ইহান-কে হারিয়ে। রিওতে প্রাক্তন কোচ গোপীচন্দের নেতৃত্বাধীন দলের সঙ্গে না গিয়ে পরে পৌঁছেছেন ব্যক্তিগত কোচ বিমল কুমারকে নিয়ে। সাইনার বর্তমান ট্রেনিং সেন্টার বেঙ্গালুরুর অ্যাকাডেমি থেকে তাঁর জন্য রিওর প্রত্যেক রাউন্ডে প্রকাশ পাড়ুকোনের গেমপ্ল্যান ফোনে উড়ে আসারও কথা।

যদিও সিডনির ঠিক দু’মাস (১১২ জুন) পরে বৃহস্পতিবার প্রথম কোনও প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলছেন বলে সাইনার টাটকা ফর্ম আর ম্যাচ ফিটনেস নিয়ে একটু হলেও সন্দিহান বিশেষজ্ঞরা। সাইনা অবশ্য বলছেন, ‘‘আমি ফিট। আর শেষ টুর্নামেন্টেই যখন চ্যাম্পিয়ন হয়েছি, তার মানে আমি ফর্মেও আছি। তবে অলিম্পিক্স সব টুর্নামেন্টের চেয়ে আলাদা। তাই এই নির্দিষ্ট সপ্তাহটায় পিকে পৌঁছনো আর নিজের সেরা খেলাটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে।’’    

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন