আলোচনার কেন্দ্রে নিঃসন্দেহে মধ্যমণি সদ্য ২০ বছরে পা দেওয়া শুভমন গিল। যিনি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আসন্ন টেস্ট সিরিজের দলে জায়গা করে নিয়েছেন।

কিন্তু আজ, মঙ্গলবার মাইসুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’ দলের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় চার দিনের বেসরকারি ম্যাচে নজরে থাকছেন আরও তিন চরিত্র। যাঁদের নিয়ে ইতিমধ্যে ভাবনাচিন্তা শুরু করে দিয়েছেন নির্বাচকেরা। তাঁরা হলেন বাংলার অভিমন্যু ঈশ্বরন, গুজরাতের প্রিয়ঙ্ক পঞ্চাল এবং এই ম্যাচের অধিনায়ক ঋদ্ধিমান সাহা। যাঁকে টেস্ট সিরিজে ফের উইকেটের পিছনে দেখার উজ্জ্বল সম্ভাবনা আছে।

গত ম্যাচে অধিনায়ক হিসেবে ৯০ রান শুভমনের সামনে খুলে দিয়েছে ভারতীয় টেস্ট দলে ঢোকার দরজা। শুধু তাই নয়। এই ম্যাচেও পঞ্জাবের কৃষিবিদের সন্তান বড় রানের ইনিংস খেলে ফেললে তা প্রকারান্তরে চাপেই রেখে দেবে ভারতীয় দলের নতুন ওপেনিং জুটি রোহিত শর্মা এবং মায়াঙ্ক আগরওয়ালকেও। কিন্তু জাতীয় দলে জায়গা করে নেওয়ার দৌড়ে খুব পিছিয়ে নেই অভিমন্যু এবং প্রিয়ঙ্কও। এই মুহূর্তে ভারতীয় দলের ওপেনিং নিয়ে যে ধাঁধা তৈরি হয়েছে, তার সমাধান হিসেবে নির্বাচকদের চোখে রয়েছেন এই দুই নতুন তারকা। ফলে এই ম্যাচ তাঁদের দু’জনের কাছেই বড় পরীক্ষা হতে চলেছে।

নিজেকে ফের জাতীয় দলে প্রতিষ্ঠিত করার লড়াইয়ের সামনে দাঁড়িয়ে ঋদ্ধিমান সাহাও। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে রিজার্ভ হিসেবে দলে ছিলেন বাংলার এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। দুই টেস্টের সিরিজে ঋষভ পন্থ খেললেও তাঁর কিপিং দক্ষতা নিয়ে এখনও সন্তুষ্ট হতে পারেনি ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আসন্ন টেস্ট সিরিজের দলে ঋষভকে রাখা হলেও উইকেটকিপার হিসেবে ঋদ্ধিকে মাঠে ফিরিয়ে আনার ভাবনা কাজ করছে বিরাট কোহালির মনে। আর নিজেকে প্রমাণ করতে মরিয়া ঋদ্ধি নিশ্চিত ভাবে নিজেকে উজাড় করে দেবেন।

পাশাপাশি থাকছেন করুণ নায়ার। ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্টে ট্রিপল সেঞ্চুরি করার পর যিনি জাতীয় দল থেকে ছিটকে যান। এ বার দলীপ ট্রফিতেও দারুণ ফর্মে ছিলেন। রয়েছেন বিশ্বকাপের মাঝপথে চোটের কারণে দেশে ফিরে আসা তামিলনাড়ুর অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্কর। এ ছাড়াও তিন স্পিনার জলজ সাক্সেনা, শাহবাজ় নাদিম এবং কৃষ্ণাপ্পা গৌতমও শেষ ম্যাচে স্পিন ঘূর্ণিতে নাজেহাল করেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’ দলকে। সঙ্গে থাকছেন কুলদীপ যাদবও। সবমিলিয়ে নতুন পরীক্ষার মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছেন তাঁরাও।

টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’ দলও এই ম্যাচেই চূড়ান্ত প্রস্তুতি সেরে নিতে চাইছে। বিশেষ করে, অধিনায়ক আইদেন মারক্রামের দিকেই তাকিয়ে রয়েছে দল। প্রথম ম্যাচে তিনিই লড়াই করেছিলেন ভারতীয় স্পিনারদের বিরুদ্ধে। তা ছাড়াও বল হাতে নিজেকে তৈরি করে রাখতে চান লুনগি এনগিডি।