• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিশ্বের এক নম্বর বক্সার অমিত, হকির সেরা সম্মান মনপ্রীতের

AMit and Manpreet
বিরল: অমিত(বাঁ দিকে) ও মনপ্রীত। পুরস্কৃত দুই তারকা। ফাইল চিত্র

মনপ্রীত সিংহ ও অমিত পঙ্ঘাল। একই দিনে ভারতীয় খেলাধুলোর ইতিহাসে গড়লেন দু’টি নজির। জাতীয় হকি দলের অধিনায়ক আন্তর্জাতিক হকি সংস্থার বিচারে প্রথম ভারতীয় হিসেবে বর্ষসেরার সম্মান পেলেন। যা ২০১৯-এ তাঁর অনবদ্য হকি খেলার স্বীকৃতি। আর বক্সিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে রুপোজয়ী অমিত আইওসি-র বক্সিং টাস্ক ফোর্সের বিচারে ৫২ কেজি বিভাগে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান লাভ করলেন।

আগামী মাসে বক্সিংয়ে অলিম্পিক্সের এশীয় পর্যায়ের যোগ্যতা অর্জন টুর্নামেন্ট। তার আগে অমিতের এক নম্বরে ওঠা ভারতীয় বক্সিংয়ের ইতিহাসে নিঃসন্দেহে বড় ঘটনা। শেষ বার কোনও ভারতীয় এই স্বীকৃতি পান বিজেন্দ্র সিংহ। ২০০৯-এ। ৭৫ কেজি বিভাগে বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে বোঞ্জজয়ী বিজেন্দ্রর পরে নতুন নজির গড়লেন অমিত।

মিডফিল্ডার মনপ্রীত বর্ষসেরা প্রথম ভারতীয় হকি তারকা। তাঁর লড়াইটা ছিল বেলজিয়ামের আর্থার ফান ডরেন (দ্বিতীয়) ও আর্জেন্টিনার লুকাস ভিয়ার (তৃতীয়) সঙ্গে। মনপ্রীত পেয়েছেন ৩৫.২ শতাংশ ভোট। এই ভোট দেয় বিভিন্ন দেশের জাতীয় সংস্থা, সংবাদমাধ্যম, হকিপ্রেমী ও খেলোয়াড়েরা। ফান ডরেন পেয়েছেন ১৯.৭ শতাংশ ভোট। ভিয়া ১৬.৫। হকি ইন্ডিয়া টুইটারে অভিনন্দন জানিয়েছে মনপ্রীতকে। হকি দলের এখনকার অধিনায়ক দু’টি অলিম্পিক্সে খেলেছেন। ২০১২-তে লন্ডনে এবং তার চার বছর পরে রিয়োয়। জাতীয় দলে তাঁর অভিষেক ২০১১-তে। দেশের হয়ে খেলেছেন ২৬০টি ম্যাচ। গত বছর তাঁর নেতৃত্বে ভারতীয় দল অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জন করে। 

বিশ্বসেরার পুরস্কার পেয়ে ভারতীয় হকি তারকার প্রতিক্রিয়া, ‘‘সত্যিই ভাবিনি এই পুরস্কার কোনওদিন পাব। আমি সম্মানিত।’’ যোগ করেন, ‘‘এই পুরস্কার এখনকার ভারতীয় দলকে উৎসর্গ করছি। ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমার শুভাকাঙ্ক্ষী ও ভক্তদেরও। যাঁরা ভোট দিয়েছেন তাঁদেরকেও আমার তরফ থেকে অনেক ভালবাসা। এই পুরস্কার আমার একার নয়। সামগ্রিক ভাবে ভারতীয় হকির।’’

উল্লসিত বক্সার অমিতও। তাঁর মন্তব্য, ‘‘এক নম্বর হওয়া অসাধারণ অনুভূতি। সব চেয়ে বড় কথা অলিম্পিক্স কোয়ালিফায়ার্সে বাছাই তালিকার উপরের দিকে থাকব। তা ছাড়া এই সম্মান আত্মবিশ্বাসও বাড়িয়ে দিল।’’ যোগ করেন, ‘‘আশা করছি টোকিয়োর টিকিট নিশ্চিত করে দেশের মানুষকে আরও গর্বিত করব।’’ আর্থিক অনিয়মের জন্য অপেশাদার আন্তর্জাতিক বক্সিং সংস্থা এই মুহূর্তে নির্বাসিত। বক্সিং সংক্রান্ত সব কিছু এখন চালাচ্ছে আইওসি-র অলিম্পিক্স টাস্ক ফোর্স। তারাই বক্সারদের র‌্যাঙ্কিং তৈরি করেছে শেষ দু’টি বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের ভিত্তিতে। অলিম্পিক্সে যোগ্যতা অর্জনের টুর্নামেন্ট হবে আম্মানে। ২০১৭ থেকে প্রায় সব টুর্নামেন্টে সফল অমিত। এশীয় মিটে সোনা জয়ের পরে তিনি প্রথম ভারতীয় পুরুষ হিসেবে বিশ্বচ্যাম্পিয়শিপে রুপো জিতে চমকে দেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন