কোপা আমেরিকার সংগঠক কনমেবল-এর বড় শাস্তির হাত থেকে বাঁচাতে লিয়োনেল মেসিকে ক্ষমা চাইতে পরামর্শ দিল আর্জেন্টিনার ক্রীড়া আদালত। 

কোপায় হারের পর হতাশ মেসি তীব্র আক্রমণ করেছিলেন, রেফারি এবং সংগঠকদের। বলেছিলেন, ‘‘ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন করানোর জন্য রেফারি সাহায্য করছেন। দুনীর্তিরও আশ্রয় নেওয়া হয়েছে। আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধেও রেফারি পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করেছেন।’’ যে বক্তব্যে বেজায় চটেছে কোপার সংগঠকরা। শোনা যাচ্ছে পাঁচ বারের ব্যালন ডি’ওর জয়ী ফুটবল তারকা দু’বছরের জন্য সাসপেন্ডও হতে পারেন। এই অবস্থায় আর্জেন্টিনার ক্রীড়া আদালত দেশের অধিনায়ককে বাঁচানোর জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে। সংস্থার অন্যতম আরবিট্রেটর গুস্তাভু আবেরু বলেছেন, ‘‘মেসিকে আমরা ক্ষমা চাইতে বলেছি। কারণ তা না হলে ও বড় রকমের সমস্যায় পড়বে।’’ ক্রীড়া আদালত দেশের তারকা ফুটবলারকে পরামর্শ দিয়েছে, ‘‘ক্ষমা চাইলে মেসিকে আর কেউ কিছু করতে পারবে না।’’ আবেরু এ-ও জানিয়ে দিয়েছেন যে, মেসিকে দেশের ফুটবল ফেডারেশন পক্ষ থেকে ক্ষমা চাওয়ার জন্য বলে  দেওয়া হয়েছে।

চিলির বিরুদ্ধে ম্যাচে হ্যারি মেডেলের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ার পর মেসিকে লালকার্ড দেখিয়ে বার করে দেওয়া হয়েছিল। বেরিয়ে যেতে হয়েছিল হ্যারিকে। ম্যাচ জিতলেও পদক দেওয়ার অনুষ্ঠান বয়কট করেন মেসি এবং তাঁর দল আর্জেন্টিনা। মেসি সেই সময়ে বলেছিলেন, ‘‘দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত কোনও কিছুর সঙ্গে নিজেদের জড়াতে চাই না।’’ পাশাপাশি মেসির বক্তব্য ছিল, ‘‘আমরা কোপা আমেরিকায় উপযুক্ত সম্মান পাইনি। আমরা আরও ভাল কিছু করতে পারতাম। কিন্তু দর্শকদের ভাল ফুটবল উপহার দেওয়ার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছিল অনেক কিছু।’’ মেসিকে তখনই বলা হয়েছিল, প্রকাশ্যে তিনি যা বলছেন তাতে ভবিষ্যতে শাস্তির মুখেও পড়তে পারেন। মেসির তখন বক্তব্য ছিল, ‘‘যা সত্যি, তাই বলেছি।’’ যা শোনার পরে কনমেবল বলেছিল, ‘‘খেলায় হার এবং জয় দু’টোই আছে। কখনও কেউ জেতে, কেউ হারে। সবার উচিত তা মেনে নেওয়া। রেফারির সিদ্ধান্তকে সম্মান প্রদর্শন করা।’’ দেখার, মেসি তাঁর দেশের ক্রীড়া আদালতের পরামর্শ মেনে চলেন কি না।

এই মুহূর্তে পরিবার নিয়ে ছুটি কাটাচ্ছেন বার্সেলোনা তারকা। স্ত্রী আন্তোনেল্লা এবং তিন সন্তানকে ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্ট করে মেসি লিখেছেন, ‘‘ফুটবল থেকে আপাতত দূরে রয়েছি।’’ যদিও তাঁর দল ইতিমধ্যে নেমে পড়েছে অনুশীলনে। স্প্যানিশ মিডিয়ার খবর, আগামী সপ্তাহেই হয়তো তিনি দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। ম্যানেজার আর্নেস্তো ভালভার্দে বলেছেন, ‘‘নতুন মরসুম শুরুর আগে দলকে ভাল ভাবে সাজিয়ে নিতে হবে। এই মরসুম আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।’’ তিনি আরও জানিয়েছেন, বিশ্রাম সেরে ফেরার পরে মেসির সঙ্গে আলোচনা করে রণকৌশল তৈরি করবেন। নবাগত  ফরাসি স্ট্রাইকার অঁতোয়ান গ্রিজম্যানকে নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘‘ওর ফুটবল আমাদের কারও কাছেই অজানা নয়। আমার বিশ্বাস, দ্রুত ও এই ক্লাবের ফুটবল সংস্কৃতির সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারবে। বরং আমরা মনে করি, গ্রিজম্যান আসাতে আমাদের আক্রমণ আরও তীক্ষ্ণ হয়ে উঠবে। ওকে কিছুটা সময় দিতে হবে আমাদের।’’ ফরাসি তারকা নিজেও উল্লসিত বার্সেলোনায় খেলার সুযোগ পেয়ে। স্পেনের এক পত্রিকাকে তিনি বলেছেন, ‘‘আমার চোখে লেব্রন জেমসের মতোই মেসি কিংবদন্তি। ফলে ওর পাশে খেলার জন্য আমি অপেক্ষা করে রয়েছি।’’ আরও বলেছেন, ‘‘আমি এই ক্লাবে নিজের সেরা ফুটবল উপহার দিতে চাই। তার জন্য মানসিক ভাবে

 তৈরি থাকছি। বার্সেলোনাকে ট্রফি দেওয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা করব।’’ 

তারই পাশাপাশি সোমবার জাপানের ২০ বছরের মিডফিল্ডার হিরোকি আবের সঙ্গে চুক্তি সেরে ফেলেছে বার্সেলোনা। তবে তাঁকে রাখা হয়েছে রিজার্ভ দলে। তাঁকে ‘বি’ ডিভিশন লা লিগায় খেলিয়ে সিনিয়র দলের জন্য তৈরি করা হবে।