নেয়োমি ওসাকাকে সরিয়ে বিশ্বের নতুন এক নম্বর হওয়ার পরেই অস্ট্রেলিয়ার টেনিস তারকা অ্যশলে বার্টিকে নিয়ে চিন্তায় সমর্থকেরা। চিন্তা তাঁর হাতের চোট নিয়ে। যে কারণে ইস্টবোর্ন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা থেকে নাম তুলে নিলেন ফরাসি ওপেন চ্যাম্পিয়ন। রবিবার বার্মিংহাম ক্লাসিক প্রতিযোগিতায় জেতার পরেই বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে উঠে আসেন বার্টি। কিন্তু টানা ১২টি ম্যাচ জেতার দৌড় ধাক্কা খায় তাঁর হাতের চোটে। ফলে আগামী মাসের গোড়ায় শুরু হওয়া উইম্বলডনের আগে তিনি সুস্থ হয়ে উঠতে পারবেন কি না উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। 

বার্টি যদিও বলে দিয়েছেন, ‘‘১৬ বছর বয়স থেকেই আমি এই চোটটার সঙ্গে লড়াই করছি। অতিরিক্ত পরিশ্রম করলেই চোটটা বাড়ে। আমাকে খেয়াল রাখতে হবে নিজের উপরে। বিশেষ করে আগামী কয়েক সপ্তাহে। আমরা জানি কী ভাবে এটা সামলাতে হবে। উইম্বলডনের আগে সুস্থ হয়ে উঠব বলেই মনে হচ্ছে।’’ ইস্টবোর্ন প্রতিযোগিতাতে তিনি শীর্ষবাছাই হিসেবে নামতেন। কিন্তু সেই সম্ভাবনা আর নেই। সাংবাদিক বৈঠকে তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘বিশ্রাম নিতে হবে আরও। সঙ্গে কোর্টে নামতে কতগুলো বল আমি হিট করছি, সেটাও দেখতে হবে। বিশেষ করে সার্ভিস করার সময়। এর আগে স্ট্রাসবার্গ ওপেন থেকেও এই কারণে নাম তুলে নিতে বাধ্য হয়েছিলাম।’’

ফরাসি ওপেন জেতার পরে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে দু’নম্বরে উঠে  এসে নজির গড়েছিলেন অস্ট্রেলীয় তারকা। এ বার বিশ্বেসেরার সিংহাসন ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ তার সামনে। কতটা কঠিন হবে নিজের শীর্ষস্থান ধরে রাখা? ২৩ বছর বয়সি বার্টি বলছেন, ‘‘এখনও পর্যন্ত এক নম্বর হওয়ার পরে আমি একটাও টুর্নামেন্টে নামিনি। একটা ম্যাচও খেলিনি। এটুকু বলতে পারি, যে ভাবে আমি পরিশ্রম করে গিয়েছি এত দিন। সেটাই করে যাব। এর পরে দেখা যাক কী হয়।’’

উইম্বলডনে চোট সারিয়ে নামতে পারলে তিনিই শীর্ষবাছাই হবেন। সেই চাপও কম নয়। বার্টি বলছেন, ‘‘জানি না শীর্ষবাছাই হিসেবে উইম্বলডনে নামার চাপ কী ভাবে সামলাব। কারণ এর আগে কখনও করিনি। তবে চ্যালেঞ্জটা 

দারুণ হবে।’’