• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শুটিংয়ে রুপো বিস্ময় কিশোরের, কবাডিতে ব্রোঞ্জ

Shardul
চমক: এশিয়াডে রুপো জেতার পরে শার্দূল। বৃহস্পতিবার। এএফপি

চমকে দিল পনেরো বছরের শার্দূল বিহান। শুটিংয়ের ডাবল ট্র্যাপে রুপো জিতে। এশিয়ান গেমসের পঞ্চম দিনটা ভারতের জন্য ভাল-মন্দয় মেশানো। সব চেয়ে বড় অঘটন ইরানের কাছে হেরে পুরুষদের কবাডিতে সোনার দৌড় থেকে ভারতের ছিটকে যাওয়া। যার মানে দাঁড়াল এই প্রথম এশিয়ান গেমসে এই বিভাগে ফাইনাল খেলা হল না সাত বারের সোনাজয়ী ভারতের এবং ব্রোঞ্জ পদক নিয়েই সন্তষ্ট থাকতে হল।

কবাডিতে সেই নব্বই এশিয়াড থেকে সোনা জিতে আসা ভারত হারল ১৮-২৭ পয়েন্টে। হতাশ ভারতের কোচ রাম মোহর সিংহের প্রতিক্রিয়া, ‘‘আমাদের ফরোয়ার্ড লাইন আজ প্রত্যাশিত ছন্দ দেখাতে পারেনি। সুপার ট্যাকলের সময়ও সমস্যা হয়েছে। যার ফল ভুগতে হল দলটাকে।’’ প্রসঙ্গত চার বছর আগে ইঞ্চিয়ন এশিয়াডে এই ইরানকে হারিয়েই সোনা জিতেছিল ভারত। তবে সে বারও দারুণ লড়েছিল ইরান। তখনই মনে হয়েছিল আগামী দিনে হয়তো কবাডিতে ভারতের একাধিপত্যে দাঁড়ি টেনে দেবে এই দেশটি। জাকার্তায় সেটাই সত্যি হল। এই হারে ব্যথিত এশিয়াডে দু’বারের সোনাজয়ী প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক অনুপ কুমারও। বললেন, ‘‘সত্যি বিশ্বাস হচ্ছে না খবরটা। শুধু মনে হচ্ছে এই খেলাটায় আমাদের যে একচেটিয়া রাজত্ব ছিল তা হয়তো আগামী দিনে আর দেখা যাবে না।’’ প্রসঙ্গত পুরুষদের ফাইনালে ইরান খেলবে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে। এ বার কিন্তু গ্রুপে কোরিয়ার কাছেও হারতে হয়েছে ভারতকে। পুরুষদের দল না পারলেও কবাডিতে সোনার আশা জিইয়ে রেখেছেন মেয়েরা। সেমিফাইনালে তাঁরা দাপটের সঙ্গে ২৭-১৪ পয়েন্টে হারালেন চিনা তাইপেইকে। শেষ দু’টি এশিয়াডে কবাডিতে মেয়েরাও সোনা এনে দিয়েছেন ভারতকে। এ বার ফাইনালে তাঁদের খেলতে হবে ইরান বনাম তাইল্যান্ড ম্যাচের বিজয়ীর সঙ্গে।

টেনিসে কিন্তু এ দিন একাধিক পদক নিশ্চিত হয়ে গেল ভারতের। অঙ্কিতা রায়না সেমিফাইনাল খেললেন শীর্ষবাছাই, গ্রান্ড স্ল্যাম কোয়ার্টার ফাইনালিস্ট শুয়াই ঝ্যাংয়ের সঙ্গে। ১৩১ মিনিট লড়াই করে অঙ্কিতা হারলেন ৪-৬, ৬-৭ (৬)। সেমিফাইনালে ওঠা মানেই ব্রোঞ্জ নিশ্চিত। অঙ্কিতাও সেটা পাচ্ছেন। এর আগে অতীতে এশিয়াড থেকে ভারতকে দু’টি পদক দিয়েছেন সানিয়া মির্জা। দোহাতে তিনি রুপো জেতেন। গুয়াংঝাউতে ব্রোঞ্জ। আর পুরুষদের ডাবলসে ফাইনালে উঠলেন রোহন বোপান্না-দ্বিবীজ শরন। পাশাপাশি একটি পদক নিশ্চিত করলেন প্রজ্ঞেশ গুনেশ্বরন। দক্ষিণ কোরিয়ার কুন সুনুকে তিন সেটে হারিয়ে। এ দিন বোপান্না-রায়না অবশ্য মিক্সড ডাবলস কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে যান।

এমনিতে দিনের নায়ক অবশ্যই  মীরাটের শার্দূল। যোগ্যতা অর্জন রাউন্ডে শীর্ষস্থান লাভ করার পরে তিনি ফাইনালে ৭৩ স্কোর করেন। এত কম বয়সে এর আগে ভারতের কেউ এশিয়ান গেমস থেকে পদক জেতেনি। বৃহস্পতিবার এই ইভেন্টে সোনা জেতেন ৩৪ বছরের দক্ষিণ কোরীয় হিউন উশিন। সাধারণত শটগানে বড় সাফল্য পান বয়স্ক প্রতিযোগীরাই। কিন্তু দয়াবতী মোদী অ্যাকাডেমির দশম শ্রেণির ছাত্র শার্দূল যা করলেন তা এক কথায় অবিশ্বাস্য। এখানে ব্রোঞ্জজয়ীর বয়সও তার তিন গুণ। শার্দূলের কোচ আনোয়ার সুলতান জানিয়েছেন, শুটিং ছাড়াও টেবল টেনিস, ব্যাডমিন্টনের মতো বেশ কিছু খেলায় বেশ দক্ষ বিত্তশালী পরিবারের এই ছেলেটি।

শার্দূল প্রতিদিন ভোর পাঁচটায় উঠে কার্নি শুটিং রেঞ্জে চলে আসেন এবং সেখানে অনুশীলন করেন রাত আটটা-ন’টা পর্যন্ত। ‘‘ওর পেশির শক্তি অবিশ্বাস্য। অসম্ভব প্রতিভাবান। এ বার আমি ওকে ট্র্যাপে নিয়ে যাব,’’ বলছেন কোচ। প্রসঙ্গত ডাবল ট্র্যাপ আগামী দিনে আর অলিম্পিক্সে থাকছে না। শার্দূলের প্রতিক্রিয়া, ‘‘স্যর আমাকে বলেছিলেন, এখানে সবাই আমার চেয়ে বয়সে বড়। তার জন্য ভয় না পেতে। আমি ঠিক সেটাই করেছি। তবে পদক জিতব ভাবিনি।’’

এ দিন জ্যোৎস্না চিনাপ্পা স্কোয়াশে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছেন। জিমন্যাস্টিক্সে ফাইনালে উঠলেও ভল্টে অরুণা বুড্ডা রেড্ডি ও প্রণতি নায়েক যথাক্রমে সপ্তম ও অষ্টম হয়েছেন। তিরন্দাজির পুরুষদের রিকার্ভে কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে গিয়েছেন অতনু দাস। তিরন্দাজিতে আবার ব্যর্থ হয়েছেন দীপিকা কুমারী। সাঁতারে নতুন জাতীয় রেকর্ড করে ৫০ মিটার ও ২০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে ফাইনালে উঠলেও পদক অধরা বীরধবল খাড়ে ও শ্রীহরি নটরাজের। তাঁরা শেষ করলেন যথাক্রমে অষ্টম এবং ষষ্ঠ স্থানে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন