• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বুম বুম বুমরাকে নিয়েই যত ভয় অস্ট্রেলীয়দের

Bumrah
নজরে: বুমরার নিখুঁত বোলিংই চিন্তার কারণ অস্ট্রেলিয়ার।

ভারতীয় বোলারদের মধ্যে যশপ্রীত বুমরাকে খেলাই কঠিন কাজ। এই মুহূর্তে ভারতীয় পেস আক্রমণের নেতা ও। বলছেন গত অ্যাশেজ সিরিজে সাড়া জাগানো অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান মার্নার্স লাবুশানে।

এখনও পর্যন্ত ভারতের বিরুদ্ধে মাত্র একটিই টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন লাবুশানে। ২০১৮-’১৯ মরসুমে সিডনিতে। আপাতত তিনি প্রস্তুতি নিচ্ছেন আগামী ডিসেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের জন্য। ভারতীয় বোলিংয়ের মূল্যায়ন করতে গিয়ে ব্রিসবেনে সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ২৬ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‍‘‍‘ভারতীয় দলে অনেক ভাল বোলার রয়েছে। তার মধ্যে বুমরাকে খেলাই সব চেয়ে কঠিন। ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতিতে একটানা বল করে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে ও। পরিস্থিতি বুঝে সুইংও করায়। ওর বলগুলো কোণাকুণি উইকেটে ঢুকে আসায় ব্যাটসম্যানেরা সমস্যায় পড়ে।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সব সময়ই আপনি সেরাদের বিরুদ্ধে খেলতে চাইবেন। ভারতীয় দলের বোলিং আক্রমণের নেতা বুমরা।’’ ইশান্ত শর্মারও প্রশংসা করেছেন লাবুশানে। তাঁর কথায়, ‍‘‍‘গত কয়েক বছর ধরে দারুণ বল করছে ইশান্ত। গত অস্ট্রেলিয়া সফরে ডান হাতি ব্যাটসম্যানদের কোণাকুণি বল করে ব্যতিব্যস্ত করে তুলেছিল। যা সামলানো আমাদের কাছে একটা বড় পরীক্ষা হয়ে দাঁড়ায়।’’

ক্রিকেট বিশ্বে প্রচলিত, দ্বিতীয় মরসুমে যে কোনও ব্যাটসম্যানের কাজটা কঠিন হয়। কারণ, তখন তাঁর দুর্বলতা বুঝে নিয়ে বোলারেরাও প্রস্তুত থাকেন। যা মেনে নিয়ে লাবুশানে বলছেন, ‍‘‍‘গত গ্রীষ্মটা দারুণ গিয়েছে। এ বার সামনে বিশ্বের সেরা বোলিং বিভাগ সমৃদ্ধ ভারতীয় ক্রিকেট দল। আশা করছি ভালই করব। সিডনি টেস্টে ও ভারতে গিয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ওদের বোলারদের খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে।’’

সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে স্টিভ স্মিথ প্রসঙ্গও। লাবুশানে বলেছেন, ‍‘‍‘ওর থেকে অনেক কিছু শিখছি। এতে আমার অনেক উন্নতি হয়েছে। ব্যাটিং নিয়ে আমাদের মধ্যে অনেক কথাই হয়। আমি ভাগ্যবান স্মিথের মতো সতীর্থ পেয়ে।’’ গত অ্যাশেজে লাবুশানের ব্যাটিং দেখে তাঁর টেকনিকের প্রশংসা করেছিলেন স্বয়ং সচিন তেন্ডুলকর। অভিভূত অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‍‘‍‘সচিনের মতো কিংবদন্তির প্রশংসা বড় প্রাপ্তি। ব্যক্তিগত ভাবে ওর সঙ্গে এখনও আলাপ হয়নি। অপেক্ষায় রয়েছি। দেখা হলেই অনেক কিছু শিখে নেওয়ার চেষ্টা করব।’’ জানাতে ভোলেননি, ভবিষ্যতে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হওয়া তাঁর স্বপ্ন। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন