অবশেষে বিদ্রোহের পথ থেকে সরে দাঁড়ালেন শাকিব আল হাসানরা। যার ফলে বাংলাদেশের আসন্ন ভারত সফর নিয়ে আর কোনও জটিলতা থাকল না।

বিভিন্ন দাবি নিয়ে ম্যাচ বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটারেরা। গত দু’দিন ধরে ধর্মঘটের রাস্তায় হেঁটেছিলেন ক্রিকেটারেরা। শাকিবরা এ-ও জানিয়ে দিয়েছিলেন, দাবি মানা না হলে তাঁরা মাঠে নামবেন না। বুধবার বাংলাদেশ বোর্ডের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকের পরে ধর্মঘটের রাস্তা থেকে সরে আসেন ক্রিকেটারেরা। রাতে শাকিব বলেন, ‘‘আলোচনা ঠিক রাস্তাতেই এগিয়েছে। আমরা এখন ধর্মঘট তুলে নিচ্ছি। ঘরোয়া ক্রিকেট খেলব, জাতীয় শিবিরেও যোগ দেব।’’  

এ দিকে, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আসন্ন সিরিজের দল নির্বাচনী বৈঠক বসবে আজ, বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে। যেখানে সঞ্জু স্যামসনকে টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ দেওয়া নিয়ে আলোচনা হতে পারে। আসন্ন এই টি-টোয়েন্টি সিরিজে  বিরাট কোহালির বিশ্রাম নেওয়ার কথা। ২০১৮ সালের অক্টোবর থেকে ভারতীয় দলের তিন ফর্ম্যাটে ৫৬টি ম্যাচের মধ্যে ৪৮টিতেই ছিলেন কোহালি। অবশ্য তিনি বিশ্রাম নেবেন না খেলবেন, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নির্বাচক কমিটি ভারত অধিনায়কের উপরেই ছেড়ে রেখেছে।

সংবাদসংস্থা পিিটআই-এর খবর, মুম্বইয়ের তরুণ অলরাউন্ডার শিবম দুবের নাম উঠতে পারে বৈঠকে। তাঁর সঙ্গে বিজয় হজারে ট্রফিতে কেরলের হয়ে ডাবল সেঞ্চুরি করা সঞ্জু স্যামসন ডাক পাবেন, এমনটা মনে করছেন অনেকে। তবে পেলেও ঋষভ পন্থের পাশাপাশি দ্বিতীয় উইকেটকিপার হিসেবে তিনি জায়গা পেতে পারেন।