• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রুদ্ধশ্বাস জয়, আইএসএল শীর্ষে সুনীলদের বেঙ্গালুরু

Sunil Chhetri
মরিয়া: গুয়াহাটিতে গোল করার চেষ্টায় সুনীল ছেত্রী। ছবি: আইএসএল

বিয়ের পর প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমেই জয় দিয়ে শুরু করলেন বেঙ্গালুরু অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী। গুয়াহাটিতে এ দিন ইন্দিরা গাঁধী অ্যাথলেটিক স্টেডিয়ামে সুনীলের বেঙ্গালুরু ১-০ হারাল নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি-কে। এ দিন জিতে চার ম্যাচে জিতে নয় পয়েন্ট হল বেঙ্গালুরুর। দ্বিতীয় স্থানে থাকা চেন্নাইয়িন এফসি-র পয়েন্টও সমসংখ্যক ম্যাচের পর সমান। কিন্তু গোলপার্থক্যে আইএসএল-এর শীর্ষে চলে গেল সুনীলদের দল বেঙ্গালুরু। অন্য দিকে, চার ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে দশ দলের ইন্ডিয়ান সুপার লিগে সপ্তম স্থানে নামল গুয়াহাটির দলটি।

সোমবারই কলকাতায় প্রাক্তন ফুটবলার সুব্রত ভট্টাচার্য়ের কন্যা সোনমের সঙ্গে বিয়ের অনুষ্ঠান সেরে  গুয়াহাটি উড়ে গিয়েছিলেন সুনীল। সেখানে আইএসএল-এর ম্যাচে ভারত অধিনায়কের বিপক্ষ ছিল জন আব্রাহামের দল নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি। সুনীলের যে পেশাদারিত্বের প্রশংসা করেছেন বেঙ্গালুরু কোচ আলবের্তো রোকা। ম্যাচে অবশ্য এ দিন পুরো সময় মাঠে ছিলেন না সুনীল। ৬৭ মিনিটে তাঁকে তুলে নিয়ে লেনি রদ্রিগেজ-কে নামান বেঙ্গালুরু এফসি কোচ আলবের্তো রোকা। তবে প্রথমার্ধে র ২১ মিনিটের মাথায় গোল করার জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিলেন সুনীল। কিন্তু ভাগ্য খারাপ থাকায় গোল পাননি তিনি।

 টানটান উত্তেজনার ম্যাচে সুনীলের দল এ দিন জিতল তাঁদের ভেনেজুয়েলা থেকে আগত ফুটবলার নিকোলাস লাদিসলাও ফ্লোরেস-র গোলে। দলের মধ্যে যিনি মিকু নামেই বেশি জনপ্রিয়। পর পর বেশ কয়েকটি ম্যাচে পয়েন্ট নষ্ট করে গত ম্যাচেই দিল্লিতে গিয়ে অ্যাওয়ে ম্যাচে দিল্লি ডায়নামোসকে ২-০ হারিয়ে এসেছিল নর্থইস্ট ইউনাইটেড। ফলে ঘরের মাঠে এ দিন শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে শুরু করেছিল নর্থইস্ট ইউনাইটেড। কিন্তু প্রথম পনেরো মিনিট দেখার পরেই পাল্টা আক্রমণ শানাতে শুরু করেন উদান্ত সিংহ, সুনীল-রা। গুয়াহাটিতে এ দিন দর্শকরা ভিড় জমিয়েছিলেন দুই লাতিন আমেরিকান ফুটবলারের দ্বৈরথ দেখতে। এই দু’জন হলেন—বেঙ্গালুরুর মিকু এবং নর্থইস্টের ব্রাজিলীয় ফুটবলার মার্সিনহো। কিন্তু সেই দ্বৈরথে শেষ হাসি হাসলেন ভেনেজুয়েলার ফুটবলারটিই।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পরে দ্বিতীয়ার্ধে নতুন উদ্যমে আক্রমণে ঝাঁপায় বেঙ্গালুরু এফসি। এই সময়েই নর্থইস্ট রক্ষণের ভুলত্রুটি খুঁজে মিকুর গোল। গোলের সময় মিকুর কৃতিত্বের চেয়েও বেশি নজরে পড়েছে গুয়াহাটির দলটির গোলকিপার রেহনেশ টিপি-র মিস পাস। তবে এর পরে গোলের সুযোগ পেয়েছিল নর্থইস্ট ইউনাইটেডও। করমর্দনের দূরত্বে থেকে গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করেন মার্সিনহো। দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে মিকুকে তুলে নিয়ে তাঁর জায়গায় ব্রউলিও নব্রেগা-কে নামান বেঙ্গালুরু কোচ। রোকা এই সময় ‘লিড’ ধরে রাখতে একটু বেশি রক্ষণাত্মক হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি জন আব্রাহামের দল।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন