• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জামশেদপুরে খেলার সুযোগ পেয়ে গর্বিত বিকাশ জাইরু

Bikash Jairu
জামশেদপুরের হয়ে আইএসএল-এ খেলছেন বিকাশ জাইরু। ছবি: আইএসএল।

এখনও গোল হজম করেনি একটি দল। একঝাঁক বাঙালি মুখ রয়েছে যে দলে।সেই চেনা নামেদের দলে আগেই জায়গা করে নিয়েছিলেন ভাইচুং ভুটিয়া, নির্মল ছেত্রী, সঞ্জু প্রধানের পথ ধরে উঠে আসা আরও এক সিকিমিজ বিকাশ জাইরু। এ বার তিনি আইএসএল-এর সেই দলে যে খান থেকেই ভারতীয় ফুটবলের প্রতিভারা উঠে আসে। সেই জামশেদপুরের হয়ে খেলতে পেরে আপ্লুত বিকাশ।

প্র: যখন খেলা থাকে না তখন কী করেন?

বিকাশ: আমি গান শুনতে খুব ভালবাসি।বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটানোর সময় আমি নিজে গিটার বাজিয়ে গান গাই। আমি অবশ্য বড় গিটারিস্ট নই। কিন্তু বাজাতে ভালবাসি।

প্র: প্রিয় গায়ক কে?

বিকাশ: অরিজিৎ সিংহ আমার খুব প্রিয়। আমরা আমার নেপালি গানও খুব ভাললাগে।

প্র: তবুও প্রতিদিন সক্কাল সক্কাল ট্রেনিং করার উৎসাহ কোথা থেকে পান?

বিকাশ: তেমন কিছু বিশেষ বিষয় নেই। আমার সব সময়ই মনে হয় আমি আমার দলের সতীর্থদের সঙ্গে প্র্যাকটিস করব। আর সেটাই আমাকে মাঠে নিয়ে যা।

প্র: গত মরসুমে চোটের জন্য খেলতে পারেননি, সেটা কতটা হতাশাজনক ছিল?

বিকাশ: খুব খারাপ সময় ছিল আমার জীবনের। কিন্তু এগুলো মেনে নিতেই হবে। নিজেকে মোটিভেট করতে হবে। আমি সব সময় সেই সব সেরা প্লেয়ারদের দেখি যাঁরা চোট দ্রুত ফিরে এসেছে। আমিও দ্রুত ফেরার চেষ্টা করেছিলাম।

আরও পড়ুন

নর্থ-ইস্টের বিরুদ্ধেই ঘুরে দাঁড়াতে হবে: সুনীল ছেত্রী

প্র: এখনও আপনার দল কোনও গোল হজম করেনি, দারুণ ছন্দে রয়েছে। কোথায় অন্যান্য দলের থেকে আলাদা জামশেদপুর?

বিকাশ: আমরা অন্যান্য দল থেকে আলাদা নই। আমরা সব সময় এক সঙ্গে থাকি। নিজেদের মধ্যে কথা বলি। এটাই সব।

প্র: আইএসএল-এর মতো লিগে খেলে একজন প্লেয়ার কতটা সাহায্য পাচ্ছে, যেখানে বিদেশি প্লেয়ার, অভিজ্ঞ কোচদের অধিনে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন?

বিকাশ: আমি ভাগ্যবাণ জামশেদপুরের মতো দলে খেলতে পেরে। বড় প্লেয়ার ও কোচদের থেকে আমি প্রতিদিনই কিছু না কিছু শিখছি। যত দিন যাচ্ছে অনেক টেকনিক্যাল বিষয় শিখতে পারছি। আমরা যে ভাবে ট্রেনিং করছি, যে ভা ঘুমোচ্ছি সবটাই খুব পেশাদার। এখানে সবাই পেশাদার।

প্র: তিনটি ড্র ম্যাচের পর  গোল করা ও দিল্লির বিরুদ্ধে জয়টা দলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল?

বিকাশ: দারুণ ছিল। তিন পয়েন্ট আমি খুব খুশি কারণ এই জয়টা খুবই দরকার ছিল।

প্র: এফসি পুণে সিটির বিরুদ্ধে কী পরিকল্পনা রয়েছে?

বিকাশ: তেমন কোনও গেম প্ল্যান নেই। আমরা দেখতে চাই ওরা কী ভাবে খেলছে। বর্তমানে আমরা প্রতিপক্ষের খেলা দেখে নিজেদের তেমনভাবে তৈরি করছি।

প্র: জামশেদপুর এফসির ফ্যানদের জন্য কোনও বার্তা দেবেন?

বিকাশ: প্রথমত, দলের ম্যানেজমেন্টকে ধন্যবাদ আমাকে দলে নেওয়ার জন্য। আর ফ্যানদের উদ্দেশে আমি বলতে চাই, তারা অসাধারণ। আমাদের প্রথম হোম ম্যাচে প্রচুর সমর্থন পেয়েছি। ওদেরকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন