সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্সের (সিওএ) পাঠানো শেষ চিঠি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ালেও বেশির ভাগ রাজ্য ক্রিকেট সংস্থা নির্ধারিত দিনেই নির্বাচন সেরে ফেলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তার মধ্যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় পরিচালিত সিএবি-ও রয়েছে। যা খবর, ঘোষণা মতো ২৮ সেপ্টেম্বরেই রাজ্য সংস্থার নির্বাচন সেরে ফেলতে চান সৌরভ। 

তবে অনেক রাজ্য সংস্থা শেষ মুহূর্তে এসে পৌঁছনো ওয়ার্কিং কমিটি নিয়ে নির্দেশ মানার ক্ষেত্রে অসুবিধার কথা জানাচ্ছে সিওএ-কে। জানা গিয়েছে, অমিত শাহ এবং তাঁর পুত্র জয় শাহ পরিচালিত গুজরাত ক্রিকেট সংস্থা এই তালিকায় রয়েছে। সিএবি-ও সেই পথ অনুসরণ করতে পারে। সিওএ থেকে দিন দুই আগেই জানানো হয়, পদাধিকারীর মেয়াদের মধ্যে ওয়ার্কিং কমিটিতে কাটানো সময়ও ধরা হবে। এই নিয়মে অনেক কর্তাই প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতামান হারাতে পারেন। রাজ্য সংস্থারা জানাচ্ছে, এই ব্যাখ্যা আসার আগেই নির্বাচনী প্রক্রিয়া অনেকটা এগিয়ে গিয়েছিল। রাতারাতি সব কিছু ওলটপালট করার সময় হাতে নেই। তাই ওয়ার্কিং কমিটির মেয়াদকে আপাতত হিসাবের বাইরে রেখেই নির্বাচন করে ফেলতে চায় তারা।

এ দিকে, ভোট দানের অধিকার থেকে বঞ্চিত হওয়ার প্রতিবাদে সিএবি-র সত্তরোর্ধ্ব কর্তারা আইনি পরামর্শ নিচ্ছেন। আদালতের দ্বারস্থও হতে পারেন। শোনা যাচ্ছে, বয়স্ক সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল সৌরভও। কিন্তু সিওএ সুর নরম করার লক্ষণ দেখাচ্ছে না।