কিবু ভিকুনার স্প্যানিশ আর্মাডার হাত থেকে বেরিয়ে গিয়েছে লিগ খেতাব। মোহনবাগানে বহুবার এ রকম ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু লিগ টেবলে প্রথম তিনে পালতোলা নৌকার সওয়ারিদের থাকার সম্ভবনাও ক্ষিণ, কবে এরকম হয়েছে তা খুঁজে পেতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। পরিসংখ্যান দেখাচ্ছে, ১৯৫৭ সালের পর গত বাষট্টি বছরে কখনও চার নম্বর হয়নি মোহনবাগান। 

জোসেবা বেইতিয়াদের যা অবস্থা তাতে আজ মঙ্গলবার সাদার্ন সমিতি এবং পরের ম্যাচ কালীঘাট এমএসের বিরুদ্ধে জিতলেও মোহনবাগানের শেষ তিনের মধ্যে থাকা সম্ভব কি না তা নিয়ে এখনও সন্দেহ আছে। কারণ নয় ম্যাচের পর সালভা চামোরোরা রয়েছেন পঞ্চম স্থানে। ‘‘আমরা আর খেতাব জেতার জায়গায় নেই। তবুও শেষ দুটি ম্যাচ জিতে লিগ টেবলে সম্মানজনক জায়গায় শেষ করতে চাই,’’ এ দিন অনুশীলনের পর বলে দিয়েছেন সবুজ-মেরুনের স্পেনীয় কোচ।

কিন্তু সেটা কি সম্ভব? কারণ যাদের সঙ্গে শেষ দুটি ম্যাচ খেলতে হবে দুটি দলই রয়েছে অবনমনের আওতায়। সাদার্নের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর মেহতাব হোসেন তো বলেই দিলেন, ‘‘আমাদের তো এটা বাঁচার ম্যাচ। তিন পয়েন্ট পেলেই টিকে যাব। ফলে জেতার লড়াই ছাড়া অন্য কোনও গতি নেই। আমরা সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাব।’’ 

নতুন আসা স্পেনীয় উইঙ্গার জুলেন কলিন্সকে কী নামাবেন মোহনবাগানের বিদেশি কোচ? কিবু বলে দিলেন, ‘‘মে মাসের পর কোনও ম্যাচ খেলেননি জুলেন। ম্যাচের দিন সকালে সিদ্ধান্ত নেব।’’ যা থেকে স্পষ্ট আজ জুলেনকে দলে রাখা নিয়ে তিনি দ্বিধায়।

রেফারি না আসায় ম্যাচ বাতিল:  বিভিন্ন ডিভিশনে অবাধ গড়াপেটার অভিযোগ উঠছে প্রতিদিন। সেই অভিযোগ এ বার প্রিমিয়ারেও। রেফারি না আসায় ভেস্তে গেল অমনমনে থাকা দুটি দল রেনবো এবং কালীঘাট মিলন সংঘের ম্যাচ। ম্যাচটি দেওয়া হয়েছিল গয়েশপুরে। দুটি দল পৌঁছলেও গেলেন না রেফারি। যা এ বছর কখনও হয়নি। জানা গিয়েছে, রেফারি সংস্থা রেফারিকে খবর দিতেই ভুলে গিয়েছিল!  

বিএসএস স্পোর্টিং এ দিন ২-১ গোলে এরিয়ানকে হারিয়ে দেওয়ায় অবনমন থেকে বেঁচে গেল। ফলে চাপে পড়ে গিয়েছে এরিয়ান ও সাদার্ন সমিতি। দুটি ক্লাবকে বাঁচাতেই ইচ্ছে করে খেলাটি ভেস্তে দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করেছে গয়েশপুরের হাজির দুই ক্লাবের কর্তারা। কালীঘাট এম এসের সচিব পার্থ বিশ্বাস বললেন, ‘‘আমরা নোংরা ময়দানী রাজনীতির শিকার।’’ আর রেনবো সচিব তাপস দে বললেন, ‘‘অন্য ক্লাবকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হচ্ছে।’’ আর রেফারি সংস্থার সচিব সুকৃতি দত্তের বক্তব্য, ‘‘ওই ম্যাচে রেফারিদের খবর পাঠাতে ভুলে গিয়েছিলাম আমরা। যে দায়িত্বে ছিল সে ওয়াটস্যাপ করে সে ভুলে গিয়েছিল।’’ সব ম্যাচে রেফারি খবর পেলেন। কেন পেলেন না শুধু এই ম্যাচের? সচিবের জবাব, ‘‘ভুল হয়ে গিয়েছে।’’ ক্ষিপ্ত আইএফএ আজ, মঙ্গলবার সভা ডেকেছে রেফারিদের।     

কলকাতা প্রিমিয়ার লিগে—মোহনবাগান: সাদার্ন সমিতি (মোহনবাগান ২-৩০)।