• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নির্বাসন থেকে মুক্ত ম্যান সিটি

Man C

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে বোর্নমুথের বিরুদ্ধে ম্যাচের আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে স্বস্তি ম্যাঞ্চেস্টার সিটি শিবিরে। উয়েফার শাস্তি খারিজ করে ইউরোপের ক্লাব ফুটবলে খেলার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিল ক্রীড়া আদালত (কোর্ট অব আরবিট্রেশন ফর স্পোর্ট, ক্যাস)। ফলে আগামী মরসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ক্ষেত্রে কোনও বাধাই থাকল না পেপ গুয়ার্দিওলার দলের। 

ক্লাব লাইসেন্সিং ও ফাইনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে (এফএফপি) বা আর্থিক স্বচ্ছতার নিয়ম লঙ্ঘন করায় চলতি বছরের শুরতে ম্যাঞ্চেস্টার সিটিকে ইউরোপের ক্লাব প্রতিযোগিতা থেকে ২০২০-’২১ ও ২০২১-’২২, এই দুই মরসুমের জন্য নির্বাসিত করেছিল উয়েফা। পাশাপাশি ৩০ মিলিয়ন ইউরো (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২৫৬ কোটি) জরিমানা করে। উয়েফা জানিয়েছিল,  ২০১২ থেকে ’১৬, এই চার বছর স্পনসরদের কাছ থেকে প্রাপ্ত অর্থ  নিয়ে উয়েফাকে ভুল তথ্য দিয়েছিল ম্যান সিটি। তদন্তেও সহযোগিতা করেনি। তাই দু’বছরের জন্য নির্বাসনের সিদ্ধান্ত নেয় উয়েফা। এর পরেই ক্যাসের দ্বারস্থ হয় ম্যান সিটি। সোমবার লোজ়ানের ক্রীড়া আদালত তাদের রায়ে জানিয়েছে, আর্থিক স্বচ্ছতার নিয়ম লঙ্ঘন করেনি ম্যান সিটি। তবে তদন্তে সহযোগিতা না করার অভিযোগে জরিমানা বহাল রয়েছে। তার পরিমাণ অবশ্য ৩০ থেকে কমিয়ে ১০ মিলিয়ন ইউরো (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৮৬ কোটি) করে দিয়েছে। ক্যাস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘‘ম্যান সিটির বিরুদ্ধে উয়েফা যে অভিযোগ করেছে, তা হয় প্রমাণ করতে পারেনি। অথবা সময় মতো জমা দিতে পারেনি।” ম্যান সিটির তরফে এই রায়কে স্বাগত জানিয়ে বলা হয়, ‘‘যাঁরা এই রায় দিয়েছেন, তাঁদের সকলকে ক্লাবের তরফ থেকে ধন্যবাদ।’’

ম্যান সিটির আগামী মরসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলা নিশ্চিত হওয়ার সঙ্গেই লড়াই জমে উঠেছে ইপিএলে। প্রথম চারটি দল সরাসরি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে যোগ্যতা অর্জন করবে। পঞ্চম দল প্লে-অফ খেলবে। এই মুহূর্তে ইপিএল টেবলের শীর্ষে লিভারপুল। ৩৫ ম্যাচে ৯৩ পয়েন্ট সালাহদের। সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ম্যান সিটি। জোর লড়াই  তৃতীয়, চতুর্থ স্থান দখলের। তৃতীয় স্থানে চেলসি, পয়েন্ট ৩৫ ম্যাচে ৬০। সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে চারে লেস্টার সিটি। এক ম্যাচ কম খেলে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। 

কেন শাস্তি কেন মুক্তি
 

কী অভিযোগ? 

• ক্লাব লাইসেন্সিং ও ফাইনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে (এফএফপি) বা আর্থিক স্বচ্ছতার নিয়ম লঙ্ঘন এবং উয়েফার তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগ ওঠে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির বিরুদ্ধে। অর্থাৎ, ইউরোপের ফুটবল নিয়ামক সংস্থার নিয়মকে উপেক্ষা করে ফুটবলার কেনার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করেছিল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। আয়ের তুলনায় ব্যয় বেশি করেছিল। 

কী শাস্তি? 

• ২০২০-’২১ ও ২০২১-’২২ মরসুমে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় খেলার ক্ষেত্রে জারি হয় নিষেধাজ্ঞা। সঙ্গে ৩০ মিলিয়ন ইউরো জরিমানা। 

কবে শাস্তি ঘোষণা হয়েছিল? 

• ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০। 

ম্যাঞ্চেস্টার সিটি কী করল? 

• উয়েফার শাস্তিকে চ্যালেঞ্জ  জানিয়ে লোজ়ানে ক্রীড়া আদালতে (কোর্ট অব আরবিট্রেশন ফর স্পোর্ট, ক্যাস) পাল্টা আবেদন করেন গুয়ার্দিওলার দলের কর্তারা। 

কী রায় দিল ক্রীড়া আদালত? 

• উয়েফার শাস্তি বাতিল করে ম্যান সিটির নির্বাসন তুলে নেওয়া হল। জরিমানা কমিয়ে ১০ মিলিয়ন ইউরো করা হল।

কেন উয়েফার শাস্তি খারিজ? 

• ম্যান সিটির বিরুদ্ধে আর্থিক স্বচ্ছতার (এফএফপি) নিয়ম লঙ্ঘন করার প্রমাণ দিতে ব্যর্থ উয়েফা। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন