বিশ্বকাপের পর আরও ৪৫ দিন ভারতীয় দলের দায়িত্ব থাকবে রবি শাস্ত্রী অ্যান্ড কোং-এর হাতে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দল নিয়ে তাঁরাই যাবেন। ইতিমধ্যেই ভারতীয় বোর্ড নতুন কোচ খোঁজার কাজ শুরু করেছেন। জমা পড়তে শুরু করেছে আবেদনও। তবে রবি শাস্ত্রীদের নতুন করে আবেদন করতে হবে না। তাঁদের নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে তিন জনকে নিয়ে গঠিত ক্রিকেট অ্যাডভাইসারি কমিটি। এই কমিটির প্রধান কপিল দেব। বাকি দু’জন হলেন অংশুমান গায়কোয়ার এবং সান্থা রঙ্গস্বামী।

এই মুহূর্তে কোচ রবি শাস্ত্রীকে নিয়ে যথেষ্ট খুশি এই কমিটি। সৌরভদের ছেড়ে যাওয়া পদে এখন কপিলদেব নিখাঞ্জদের এই কমিটি। ভারতীয় দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররাও শাস্ত্রীকে নিয়ে সন্তুষ্ট। শাস্ত্রীর পক্ষে কথা বলছে তাঁর রেকর্ডও। ২০১৭ সালে দ্বিতীয় বার ভারতীয় দলের দায়িত্ব নিয়ে তিনি সফল হন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে দেশকে প্রথম সিরিজ জয় এনে দিতে। জয় আসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে একদিনের ও টি-২০ সিরিজে। বিশ্বকাপেও লিগে সবার ওপরে শেষ করে ভারত। তাঁর এই রেকর্ড অগ্রাহ্য করা যাবে না। যাবে না ভারতীয় দলের ফিটনেসের উন্নতিকেও। কারণ রবি শাস্ত্রীর সময়েই ভারতীয় দলে এই উন্নতি এসেছে।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপজয়ী কোচের সঙ্গে চুক্তি করছে নাইট রাইডার্স?

নিয়ম অনুযায়ী যদিও শাস্ত্রীদের ফের জন্য আবেদন জানাতে হবে। সেই আবেদন সরাসরি সিলেকশনের জন্য মান্যতা পাবে, তাঁরা এই মুহূর্তে এই কাজে নিযুক্ত রয়েছেন বলে। যদিও বিসিসিআই নতুন কোচের জন্য নোটিস পেশ করেছে। তাদের নোটিস অনুযায়ী হেড কোচের বয়স হতে হবে অনূর্ধ্ব ৬০। থাকতে হবে নিদেন পক্ষে দুই বছর কোনও টেস্ট খেলা দেশের হয়ে খেলার অভিজ্ঞতা। খেলতে হবে অন্তত ৩০টি টেস্ট ম্যাচ অথবা ৫০টি একদিনের ম্যাচ।

ভারতের ফিটনেস ট্রেনার ও ফিজিও বিশ্বকাপের পরেই কাজ ছেড়ে দিয়েছেন। তাই সেই জায়গায় নতুন কাউকে নিতেই হবে ভারতীয় দলকে। এখন অপেক্ষার, হেড কোচ-সহ ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং কোচ নিয়ে ভারতীয় বোর্ড ও ক্রিকেট অ্যাডভাইসারি কমিটি কী সিদ্ধান্ত নেয়।

আরও পড়ুন: ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে নিজেই নিজেকে সরিয়ে নিলেন ধোনি!