ওয়ে গুন্নার সোলসার বলেছিলেন তাঁর দলে পেনাল্টি মারবেন পল পোগবা বা মার্কাস র‌্যাশফোর্ড। আগের ম্যাচে উলভসের বিরুদ্ধে পেনাল্টি নষ্ট করেন পোগবা। তাঁর যথেচ্ছ সমালোচনা হয়। শনিবার ক্রিস্টাল প্যালেস ম্যাচেও ৭০ মিনিটে পেনাল্টি পেল ম্যান ইউ। এ বার মারলেন র‌্যাশফোর্ড। এবং সেই শট পোস্টে ধাক্কা খেয়ে ফিরে এল। 

ধাক্কা খেল ম্যান ইউও। ক্রিস্টাল প্যালেসের মতো দল ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে এসে রেড ডেভিলসকে ২-১ হারিয়ে গেল। এ ক্ষেত্রেও ম্যান ইউর হারে অবদান রাখলেন পোগবা। ফরাসি তারকা নিজেদের এলাকায় একটা ভুল পাস বাড়িয়ে দিলেন শেষ বাঁশি বাজার মুখে। যে বল অবলীলায় ধরে গোল করে গেলেন প্যাট্রিক ফান অ্যানহল্ট। শুধু ভুল পাস নয়। মাঝমাঠে পোগবার খেলায় সৃষ্টিশীলতার ছিঁটেফোটা ছিল না। কে বলবে, এই দলটাই এ বারের ইপিএল শুরু করেছে চেলসিকে ৪-০ হারিয়ে! সোলসারের সান্ত্বনা একুশ বছরের ড্যানিয়েল জেমসের বাঁক খাওয়ানো শটে ১-১ করা।  সোলসারের হাতে নতুন বলতে জেমস। কিন্তু চেলসির নতুন কোচ ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডকে ভরসা করতে হচ্ছে অনেক নবাগতের উপর। উয়েফার ট্রান্সফার সংক্রান্ত শাস্তির জেরে এ বার তারা দলই গড়তে পারেনি। ভরসা নতুনরাই। একুশ বছরের ট্যামি আব্রাহাম শনিবার জোড়া গোল করে ল্যাম্পার্ডকে ইপিএলে প্রথম জয় উপহার দিলেন। নরউইচের বিরুদ্ধে ‘দ্য ব্লুজ’ জিতল ৩-২। ৩ মিনিটেই ট্যামি গোল করেন। গোল করলেন চেলসির আর এক প্রতিশ্রুতিমান কুড়ি বছরের ম্যাসন মাউন্টও।

ইপিএলে ম্যান ইউের মতো দলের যখন নাভিশ্বাস উঠছে তখন গতবারের রানার্স লিভারপুল কিন্তু স্বমেজাজে। শনিবার নিজেদের মাঠে আর্সেনালের মতো শক্তিশালী দলকে তারা কার্যত দাঁড়াতেই দিল না। লিভারপুল জিতল ৩-১ গোলে। জোড়া গোল মহম্মদ সালাহর। ৪১ মিনিটে ১-০ করেন লিভারপুলের জোয়েল মাতিপ। তারপরেই মিশরের মেসির পেনাল্টি থেকে গোল। ৯ মিনিটের মধ্যেই আবার গোল করেন সালাহ। ৮৫ মিনিটে একটি গোল শোধ করেন আর্সেনালের লুকাস পাসকুয়া। 

ম্যাচ শেষে লিভারপুল ম্যানেজার য়ুর্গেন ক্লপ বলেন, ‘‘দলের খেলায় আমি মুগ্ধ। অসাধারণ খেলেছে আমাদের ছেলেরা। বিশেষ করে সাদিয়ো মানে ও মহম্মদ সালাহ। বিপক্ষকে দাঁড়াতে না দেওয়াই ছিল আমাদের পরিকল্পনা। তাতে কিন্তু আমরা সফল।’’ সঙ্গে ক্লপ আরও বলেন, ‘‘তবে আর্সেনালের বেশ কয়েকটি পাস বুঝতে পারেনি আমাদের রক্ষণের খেলোয়াড়েরা। বিশেষ করে আবুমেয়ং ও লুকাস পাসকুয়া বেশ ভাল খেলেছে। পরের ম্যাচে দেখতে হবে আমরা যেন একই ভুল না করি।’’

রবিবার ইপিএলে: বোর্নমুথ বনাম ম্যাঞ্চেস্টার সিটি (সন্ধে ৬-৩০)। সরাসরি সম্প্রচার স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ওয়ানে।