আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে নতুন প্রজন্মকে নিয়ে দল গড়তে চাইছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি। সেই রাস্তায় যে তিনি অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছেন, সেটা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজটা পরিষ্কার বুঝিয়ে দিল। তরুণ শক্তির উপরে ভর দিয়েই ৩-০ ফলে সিরিজ জিতে নিল কোহালির ভারত।

প্রথম দুটো ম্যাচে যদি অধিনায়কের ডাকে সাড়া দিয়ে এগিয়ে আসেন নবদীপ সাইনি, ওয়াশিংটন সুন্দরের মতো তরুণরা, তবে মঙ্গলবারের নায়ক দীপক চাহার। রাজস্থানের এই তরুণ পেসার সুযোগ পেয়ে অবিশ্বাস্য একটা স্পেলে শুরুতে ক্যারিবিয়ান ব্যাটিংকে ধাক্কা দিয়ে যান। তিন ওভার বল করে চার রান দিয়ে তিন উইকেট তুলে নেন দীপক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটাই যে কোনও ভারতীয় বোলারের সেরা পরিসংখ্যান।       

দীপকের পাশাপাশি আরও এক তরুণ ছাপ রেখে গেলেন এই ম্যাচে। তিনি ঋষভ পন্থ। প্রথম দু’টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে চার নম্বরে নেমে ব্যর্থ হয়েছিলেন ঋষভ। এই ম্যাচেও তাঁকে চার নম্বরে নামানো হয়। অধিনায়কের আস্থার মর্যাদা দিয়ে গেলেন ঋষভ। ৪২ বলে অপরাজিত ৬৫ করে। অধিনায়ক কোহালির সংগ্রহ ৪৫ বলে ৫৯। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ছয় উইকেটে ১৪৬ রান মাত্র তিন উইকেট হারিয়ে, পাঁচ বল বাকি থাকতে তুলে নেয় ভারত। 

 

দুরন্ত: গায়ানায় পন্থ-কোহালি জুটির দাপটে এল জয়। মঙ্গলবার। ছবি: টুইটার।

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতীয় দলে এক সঙ্গে দুই ভাইয়ের খেলা নতুন কিছু নয়। এর আগে খেলেছিলেন সুরিন্দর অমরনাথ-মোহিন্দর অমরনাথ, ইউসুফ পাঠান-ইরফান পাঠান, ক্রুণাল পাণ্ড্য-হার্দিক পাণ্ড্য। আর এ বার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে মাঠে নামলেন চাহার ভাইয়েরা। পেসার দীপক এবং লেগস্পিনার রাহুল। দীপক আগেও ভারতের হয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে খেলেছেন। রাহুলের এটাই অভিষেক ম্যাচ ছিল। দাদার মতো সাফল্য তিনি পাননি। তিন ওভারে ২৭ রান দিয়ে রাহুল পেলেন এক উইকেট। দলের পারফরম্যান্সে খুশি কোহালি বলেছেন, ‘‘নিখুঁত খেলেছে দল। মায়ামির চেয়ে এখানকার পিচ অনেক ভাল। তাই রানটা বেশি হয়েছে।’’

স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ    ১৪৬-৬ (২০)
ভারত ১৫০-৩ (১৯.১)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ
লিউইস এলবিডব্লিউ বো চাহার      ১০ • ১১
নারাইন ক সাইনি বো  চাহার               ২ • ৬
হেটমেয়ার এলবিডব্লিউ বো চাহার       ১ • ৩
পোলার্ড বো সাইনি                       ৫৮ • ৪৫
পুরান ক পন্থ বো সাইনি                 ১৭ • ২৩
পাওয়েল ন. আ.                           ৩২ • ২০
ব্রাথওয়েট ক সুন্দর বো রাহুল           ১০ • ৭
অ্যালেন ন. আ.                                 ৮ • ৫
অতিরিক্ত                                               ৮
মোট                                            ১৪৬-৬ (২০)
পতন: ১-৪ (নারাইন, ১.৫), ২-১৩ (লিউইস, ৩.১), ৩-১৪ (হেটমেয়ার, ৩.৫), ৪-৮০ (পুরান, ১৩.১) ৫-১০৫ (পোলার্ড, ১৫.৪), ৬-১১৯ (ব্রাথওয়েট, ১৭.২)। 
বোলিং: ভুবনেশ্বর কুমার ৩-০-১৯-০, দীপক চাহার ৩-১-৪-৩, নবদীপ সাইনি ৪-০-৩৪-২, রাহুল চাহার ৩-০-২৭-১, ওয়াশিংটন সুন্দর ৩-০-২৩-০, ক্রুণাল পাণ্ড্য ৪-০-৩৫-০।

ভারত
রাহুল ক পুরান বো অ্যালেন           ২০ • ১৮
ধওয়ন ক কটরেল বো থমাস               ৩ • ৫
কোহালি ক লিউইস বো থমাস       ৫৯ • ৪৫
পন্থ ন. আ.                                   ৬৫ • ৪২
মণীশ ন. আ.                                     ২ • ৫
অতিরিক্ত                                              ১
মোট                                        ১৫০-৩ (১৯.১)
পতন: ১-১০ (ধওয়ন, ১.৬), ২-২৭ (রাহুল, ৪.৪), ৩-১৩৩ (কোহালি, ১৭.৩)। 
বোলিং: শেলডন কটরেল ৪-০-২৬-০, ওশেন থমাস ৪-০-২৯-২, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন ৩-০-১৮-১, সুনীল নারাইন ৪-০-২৯-০, কার্লোস ব্রাথওয়েট ২.১-০-২৫-০, কিমো পল ২-০-২৩-০। 

৭ উইকেটে জয়ী ভারত
ম্যাচের সেরা দীপক চাহার