এটিকে রিজার্ভ ১ • মহমেডান ০ 

সুব্রত ভট্টাচার্যের দলের খেলার কোনও ধারাবাহিকতা নেই। 

ডুরান্ড কাপের দ্বিতীয় ম্যাচে ছয় গোল দিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিল মহমেডান। দলের স্ট্রাইকার আর্থার কোসি একাই পাঁচ গোল করেছিলেন। শুক্রবার যুবভারতীতে সেই দলই হারল এটিকের রিজার্ভ দলের কাছে। খেলার শুরুতেই গোল খেয়ে যায় মহমেডান। খেলার দু’মিনিটে উইলিয়াম পাউলিয়ানখুম এটিকের হয়ে গোল করে যান। বাকি সময় অসংখ্য গোলের সুযোগ পেয়েও জিততে পারেননি মুদে মুসারা। অন্তত পাঁচ থেকে ছ’য়টি নিশ্চিত গোল আটকে ম্যাচের সেরা হন এটিকের গোলকিপার অভিলাষ পাল।

এমনিতে ডুরান্ড কাপের এই ম্যাচের কোনও গুরুত্ব ছিল না। নিতান্তই নিয়মরক্ষার ম্যাচ ছিল। কারণ ইতিমধ্যেই এই গ্রুপ থেকে শেষ চারে চলে গিয়েছে মোহনবাগান। সে জন্যই দলে দু’তিনটে পরিবর্তন করেছিলেন সাদা-কালো কোচ। নামাননি স্টপার করিম ওমোলোজাকে। দুই বিদেশিকেই নিয়েই নেমেছিল মহমেডান। গ্রুপ লিগে প্রথম দুটি ম্যাচ জিততে পারেননি এটিকে। মূলত গত বছর যে ফুটবলাররা খেলেননি সেই প্রবীর দাশ, অঙ্কিত মুখোপাধ্যায়, বরিস সিংহদের নামিয়ে দিয়েছিল আইএসএলের দলটি। তা সত্ত্বেও মহমেডান অনেকগুলো গোলের সুযোগ পেয়েছিল। তীর্থঙ্কর সরকার, মুদে মুসা, আর্থার কোসিরা গোলের সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি। মহমেডানের একটি শট পোস্টে লেগেও প্রতিহত হয়। 

ডুরান্ড থেকে হেরে বিদায় নিলেও সোমবারই কলকাতা লিগের ম্যাচ রয়েছে সাদার্ন সমিতির সঙ্গে। যে দলে আল আমনার মতো ফুটবলার আছে। প্রথম ম্যাচে এরিয়ানের সঙ্গে ড্র করার পর এই ম্যাচ না জিতলে চাপে পড়ে যাবে মহমেডান। ক্লাব সূত্রের খবর, লিগে যে সমস্ত ফুটবলারদের নথিভুক্ত করেছিলেন, তাঁদের অনেককেই ডুরান্ডের দল রাখেননি সুব্রত। তা নিয়ে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে দলের ভিতরে। এক নম্বর গোলকিপার অভিজ্ঞ প্রিয়ন্ত সিংহকে দলেই রাখতে চাইছেন না মহমেডান কোচ।