• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টিতে নয়, টেস্টের পর একেবারে ‘চহাল টিভি’-তে ডেবিউ করলেন ময়াঙ্ক!

Mayank Agarwal and Yuzvendra Chahal
ময়াঙ্ক আগরওয়াল ও যুজভেন্দ্র চহাল। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

গেমপ্ল্যান ঠিক থাকলে বিভিন্ন ফরম্যাটে মানিয়ে নেওয়া সহজ। অন্তত, ময়াঙ্ক আগরওয়ালের তেমনই বিশ্বাস। তার সেই বিশ্বাসের কথাই ‘চহাল টিভি’-তে শোনালেন তিনি।

চোটের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছিটকে যাওয়া শিখর ধওয়নের জায়গায় স্কোয়াডে এসেছেন তিনি। রবিবার সিরিজের প্রথম ওয়ান ডে। তার আগে শনিবার ‘চহাল টিভি’-তে এসেছিলেন ময়াঙ্ক। সেখানেই চহাল তাঁকে বিভিন্ন ফরম্যাটের মধ্যে মানিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করেন। জানতে চান, কী করে তিনি লাল বলের ক্রিকেট ও সাদা বলের ক্রিকেটের মধ্যে মানিয়ে নেন।

নিলামে এই বিদেশি ওপেনারদের দিকে নজর থাকবে নাইট রাইডার্সের আরও পড়ুন

জবাবে ময়াঙ্ক বলেন, “যত এ ভাবে বিভিন্ন ফর্ম্যাটে খেলব, একজন ক্রিকেটার হিসেবে সেটাই ভাল। কারণ, ক্রিকেট না খেলার চেয়ে খেলতে থাকা বেটার। আর বিভিন্ন ফরম্যাটের মধ্যে মানিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে বলতে পারি যে, প্রাথমিক ব্যাপারগুলো কিন্তু একই। তাই গেমপ্ল্যান নিজের কাছে স্পষ্ট থাকলে আর খেলাটা সম্পর্কে ধারণা পরিষ্কার থাকলে বিভিন্ন ফরম্যাটে পর পর খেলা কঠিন নয়।”

গত ডিসেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট অভিষেক হয়েছিল ময়াঙ্কের। তারপর পাঁচ দিনের ফরম্যাটে ক্রমশ উন্নতির রাস্তায় থেকেছেন তিনি। এই বছরে টেস্টে সবচেয়ে বেশি রান সংগ্রহকারীর তালিকায় রয়েছেন তিনি। টেস্ট না একদিনের ম্যাচ, তা নিয়ে ভাবতে চান না ময়াঙ্ক। তাঁর কথায়, “যেখানেই খেলি না কেন, সবসময় ভাবি, কী ভাবে দলের কাছে সম্পদ হয়ে উঠতে পারি। কী ভাবে অবদান রাখতে পারি দলের কাছে। আমি যদি ব্যাটে রান না করতে পারি, তা হলে ভাবি কী ভাবে ফিল্ডিংয়ে ছাপ রাখব। মাঠে কী ভাবে আরও এনার্জি আমদানি করব।”

ভুবির বদলে এলেন এক বছরের বেশি জাতীয় দলের বাইরে থাকা মুম্বইয়ের পেসার আরও পড়ুন

আগরওয়াল টেস্টে দুটো ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন। একটা সেঞ্চুরিও করেছেন তিনি। সেই ব্যাপারে তিনি বলেছেন, “আমি প্রত্যেক ম্যাচ জিততে চাই। প্রত্যেক টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। এই মানসিকতা সঙ্গী হলে ভালই হয়। তবে ১০০ শতাংশ সাফল্যের নিশ্চয়তা পাওয়া যায় না কখনই। কিন্তু যা করলে পারফরম্যান্স ভাল হতে পারে, সেই চেষ্টা তো করতেই হবে।”

এর মধ্যে চহালের সঙ্গে মজা করতেও দেখা গেল ময়াঙ্ককে। বললেন, “এই প্রথমবার চহাল টিভিতে ডেবিউ করলাম আমি!” টেস্টের পর ৫০ ওভারের ক্রিকেট বা টি-টোয়েন্টিতে নয়, যেন ‘চহাল টিভি’-তেই অভিষেক করলেন তিনি! যা শুনে হাসিতে মেতে উঠলেন চহাল। পাল্টা বললেন, “যে ভাবে হাতের পেশি ফোলাচ্ছে, দেখে মনে হচ্ছে এইমাত্র জিম করে এসেছে।” এরপর দু’জনেই গলা জড়িয়ে হেসে উঠলেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন