২০১৬ সালের অক্টোবরে শেষবার বিদেশে টেস্ট জিতেছিল ইংল্যান্ড। যা ছিল ১৪ টেস্ট আগের ঘটনা। এর পর ভারতে এসে ০-৪ হেরেছে ইংল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ায় হেরেছে ০-৪। নিউ জিল্যান্ডে হেরেছে ০-১। শুক্রবার গলে রঙ্গনা হেরাথের বিদায় বাসর পণ্ড করে অবশেষে বিদেশে ১৩তম টেস্টে জয়ের মুখ দেখল ইংল্যান্ড।

শুক্রবার প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনে শ্রীলঙ্কাকে ২১১ রানে হারাল জো রুটের দল। একইসঙ্গে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল তারা। চতুর্থ ইনিংসে জেতার জন্য ৪৬২ রান করতে হত দীনেশ চান্ডিমলের দলকে। কিন্তু, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথেউজ (৫৩) ছাড়া কেউ পঞ্চাশ পার করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ২৫০ রানে দাঁড়ি পড়ে শ্রীলঙ্কা ইনিংসে।

অফস্পিনার মইন আলি (৪-৭১) ও বাঁ-হাতি স্পিনার জ্যাক লিচ (৩-৬০) প্রধানত ভাঙন ধরান ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে। প্রথম ইনিংসেও চার উইকেট নিয়েছিলেন মইন। তবে ম্যাচের সেরা হয়েছেন অভিষেক টেস্টেই শতরানকারী বেন ফোকস।

আরও পড়ুন: ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট চালু করতে আইসিসিকে উদ্যোগ নিতে বলল পিসিবি​

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের জন্য কি এগিয়ে আসবে আইপিএল?

টেস্ট জেতার পর উচ্ছ্বাস রুটদের। ছবি: এএফপি।

বিদায়ী টেস্ট মোটেই মধুর হল না রঙ্গনা হেরাথের। শ্রীলঙ্কার স্পিনার টেস্টে ৪৩৩ উইকেট নিয়ে শেষ করলেন। সর্বকালের সফলতম বাঁ-হাতি বোলার তিনি। শুধু স্পিনারদের মধ্যে নয়, বাঁ-হাতি বোলারদের মধ্যেই তিনি সবার উপরে থাকলেন। কিন্তু হারলেন শেষ টেস্টে। শেষ ইনিংসে পাঁচ করে রান আউট হলেন তিনি। তাঁর আউটের সঙ্গে সঙ্গে টেস্ট হারল শ্রীলঙ্কা।

হেরাথ বিদায়ী সংবর্ধনার পর বলেন, “আবেগতা়ড়িত লাগছে। কিন্তু, সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হয়। দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পারা গর্বের ব্যাপার।” শ্রীলঙ্কা দলের পক্ষ থেকে হেরাথকে একটা ট্রফি আর সই করা শার্ট উপহার দেওয়া হয়।  শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক চান্ডিমল বলেন, “রঙ্গনার দলের জন্য অনেক অবদান। ও অসাধারণ মানুষ। আমার দেখা অন্যতম সেরা মানুষ।” ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট বলেন, “পরে যে ওর বোলিং খেলতে হবে না, সেটাতেই আমি খুশি!”

(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল, টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)