অপরাজিত লিভারপুল। রবিবার ইপিএলে চেলসিকে তারা হারাল ২-১ গোলে। গোল করলেন লিভারপুলের ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আর্নল্ড (১৪ মিনিট) ও রবের্তো ফির্মিনো (৩০ মিনিট)। ৭১ মিনিটে চেলসির এনগোলো কন্তে একটি গোল শোধ করলেন।  চেলসির এক ঝাঁক নতুন ফুটবলার লড়াই করলেও সেটা লিভারপুলকে হারানোর পক্ষে যথেষ্ট ছিল না।  লিভারপুলের অধিনায়ক জর্ডান হেন্ডারসন বললেন, ‘‘জানতাম কঠিন ম্যাচ খেলতে হবে।  কিন্তু তার পরেও দিনের শেষে আমরাই সেরা।’’ ইপিএল টেবলে লিভারপুলই এখন শীর্ষে। গত বারের চ্যাম্পিয়ন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির থেকে তারা সেই পাঁচ পয়েন্ট এগিয়ে থাকল।    

এ িদকে ওয়ে গুন্নার সোলসারের জমানায় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডকে রীতিমতো সাধারণ একটা ক্লাব মনে হচ্ছে। রবিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ওয়েস্ট হ্যামও তাদের ২-০ হারিয়ে দিল নিজেদের মাঠে। আন্দ্রিয়ে ইয়ারমোলেঙ্কো (৪৪ মিনিট) আর অ্যারন ক্রেশওয়েলের (৮৪ মিনিটে) গোলের সৌজন্যে ওয়েস্ট হ্যাম এ দিন ম্যান ইউয়ের বিরুদ্ধে টানা দুই ম্যাচ নিজেদের মাঠে জিতল। পুরনো ক্লাবের এ হেন হার নিয়ে প্রাক্তন ম্যান ইউ ম্যানেজার জোসে মোরিনহোকে বলতে শোনা গেল, ‘‘এ বারের দলটার যা ধার, তাতে খেতাব জয়ের কথা ভুলে যাওয়াই ভাল। আমি অবাক হব ওরা প্রথম চারে শেষ করলেই। তবে শুধুই প্রথম চারের লক্ষ্যে লড়াই করলে অনেক সময় নতুনদের তুলে আনার একটা সুযোগ এসে যায়। জানি না সোলসার সেটা করবে কি না।’’

প্রাক্তন ম্যান ইউ অধিনায়ক রয় কিন অবশ্য রবিবার ম্যাচের আগে বলেছিলেন, ‘‘আমার তো মনে হয় টটেনহ্যাম আর আর্সেনাল যা খেলছে তাতে আমাদের অবশ্যই প্রথম চারে থাকা উচিত। সে ক্ষেত্রে পরের বার আমরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও খেলতে পারব।’’ কিন যা-ই বলুন, ম্যান ইউ সমর্থকেরা কিন্তু মারাত্মক হতাশ। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কে তারা বলতে শুরু করেছেন, ‘‘আর যাই হোক, আমাদের ক্লাবকে কোচিং করানোর কোনও যোগ্যতা 

ওয়ের (সোলসার) নেই।’’ কিন্তু রবিবার ম্যাচের পরে সোলসার নিজে কী বলছেন? ‘‘লিগ সবে শুরু হয়েছে। শুরুতেই চোট আঘাত নিয়ে সমস্যায় পড়েছি বলে দলটাকে এখনও ঠিক মতো সাজাতে পারিনি। হতে পারে, সবাই সুস্থ হলে ছবিটা এ রকম থাকবে না। আপাতত অপেক্ষা করা আর চেষ্টা করে যাওয়া ছাড়া অন্য কোনও উপায় নেই,’’ বলেছেন ম্যান ইউ ম্যানেজার। এ দিনও অ্যান্থনি মার্সিয়াল ও পল পোগবাকে খেলাতে পারেননি সোলসার। 

খেলার ২১ মিনিটে বলতে গেলে একবারই মার্কাস র‌্যাশফোর্ড বল ধরে অনেকটা দৌড়ে প্রায় গোল করার জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য তিনি পারেননি। কিন্তু চোট পেয়ে র‌্যাশফোর্ডও মাঠ ছাড়ায় বিশাল সমস্যায় পড়েন সোলসার। হাতে কার্যত আর কোনও স্ট্রাইকার না থাকায় তিনি জেসি লিনগার্ডকেই আক্রমণে তুলে আনতে বাধ্য হন। কিন্তু কোনও ফাটকাতেই কাজ হয়নি এ দিন। 

প্রিমিয়ার লিগে টানা সাত ম্যাচ ম্যান ইউ বাইরের মাঠে জিততে পারল না।  জবাবদিহি দিতে গিয়ে সোলসার বলে গেলেন, ‘‘জানি না বারবার কেন এ রকম হচ্ছে। তবে এই হারের মানে এমন নয় যে আর আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারব না। সমর্থকদের কাছে আমার একটাই অনুরোধ, আর একটু অপেক্ষা করুন। আমি নিশ্চিত সব দিন সমান যাবে না।’’ 

এ দিন অন্য একটি ম্যাচে আর্সেনাল ৩-২ গোলে হারাল অ্যাস্টন ভিলাকে।