• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরু করার ভাবনা, চাপ দেবেন না ক্লপ

Jürgen Klopp
সতর্ক: মুখাবরণ পরে প্র্যাক্টিসে লিভারপুলের ম্যানেজার ক্লপ। টুইটার
করোনা সংক্রমণের মাত্রা সে ভাবে কমেনি ইংল্যান্ডে। মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ওয়ার্টফোর্ডের এক ফুটবলার ও দুই কর্মী। এ ছাড়া ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আর এক ক্লাব বার্নলির সহকারী ম্যানেজার ইয়ান ওয়ানেরও শরীরে পাওয়া গিয়েছে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি। তারা অনুশীলনে না নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর একটি ক্লাবের দু’জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও সেই ক্লাবের নাম গোপন করা হয়েছে। সব মিলিয়ে মোট ছ’জন মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে ইপিএল আবার শুরু করা নিয়ে ব্রিটিশ ফুটবলমহলে তর্ক অব্যাহত। তবে লিভারপুল ম্যানেজার য়ুর্গেন ক্লপ মনে করেন, ঠিক সময়েই ইপিএল ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
 
মঙ্গলবার থেকে ইপিএলের দলগুলি ছোট ছোট গোষ্ঠীতে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে। আবার ফুটবলারদের মাঠে ফিরতে পেরে উল্লসিত ক্লপও। ক্লাবের ওয়েবসাইটে তিনি বলেছেন, “মনে হচ্ছে যেন চাঁদের উপর দিয়ে হাঁটছি। আমি বরাবর বলে এসেছি, মাঠে নামার জন্য তাড়াহুড়ো করব না। তবে এখন যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তাকে মোটেও তাড়াহুড়ো বলা যাবে না।” ক্লপ আরও যোগ করেছেন, “জীবনকে স্বাভাবিক পথে ফিরিয়ে আনতে ধীরে ধীরে সমস্ত কিছু খুলে দিতে হবে। আমরা যারা ইংল্যান্ডে রয়েছি, তাদের জন্য এই ব্যাপারটার খুব প্রয়োজন ছিল। এটার মধ্যে কোনও ধরনের ব্যস্ততা রয়েছে বলে আমি মনে করি না।”
 
গত দু’মাস ফুটবল বন্ধ হওয়ার পরে ধীরে ধীরে ফুটবলারদের দেখা যাচ্ছে তাঁদের পরিচিত জগতে। সেই ছবিটাই ক্লপকে অনেক বেশি তৃপ্তি এবং স্বস্তি দিয়েছে। তিনি বলছেন, “সকলেই বোধহয় একমত হবেন যে, ইপিএল এবং সমস্ত দলগুলিকে চাঙ্গা করে তুলতে আমরা যে পথে এগোচ্ছি তা ঠিক এবং ফুটবলকে ফিরিয়ে আনার এটাই সেরা মুহূর্ত।”
 
হিসেব মতো আগামী মাসে ইপিএল শুরু হলে দুটি ম্যাচে জয় প্রয়োজন ক্লপের দলের ইপিএল ট্রফি হাতে তুলতে। ক্লপ হয়তো সেই কারণে ফুটবলারদের ফিটনেস নিয়ে খুব একটা ভাবিত নন। তিনি বলেছেন, “শারীরিক ভাবে দারুণ জায়গায় রয়েছে আমার দলের ফুটবলারেরা। ওদের শুধু মাঠে নেমে নতুন ভাবে বুটের সঙ্গে বলের সম্পর্কটা নতুন ভাবে গড়ে তুলতে হবে। সেই ব্যাপারের উপরেই এখন বেশি জোর দেব আমরা, যাতে ম্যাচ শুরু হলে ফুটবলারদের কোনও ধরনের অস্বস্তির মধ্যে না পড়তে হয়।” 
 
যদিও তারই মধ্যে ক্লপকে পীড়া দিচ্ছে অ্যানফিল্ডে প্রিয় দর্শকদের অনুপস্থিতিতে তাঁর দলকে ম্যাচ খেলতে হবে। ক্লপের কথায়, “এমন প্রাণবন্ত এবং উজ্জীবিত সমর্থক না থাকলে দল এই জায়গায় পৌঁছতেই পারত না। তবে দুর্ভাগ্যজনক ভাবে এখনকার পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে অ্যানফিল্ডের দর্শকদের। এখন এটাই দাবি করছে পরিস্থিতি।” আরও বলেছেন, “আমি এটা আজও বুঝে উঠতে পারিনি, জীবনে যে ব্যাপারটার প্রতি আমার নিজস্ব কোনও নিয়ন্ত্রণ বা অধিকার নেই, তাকে পাওয়ার আশা করার মধ্যে কী সার্থকতা রয়েছে। আমরা এখন যে পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছি, তার গুরুত্ব মেনে এগোতে হবে।” 
 
এ দিকে চলতি বছরের অগস্টেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শেষ করতে  মরিয়া উয়েফা। ইউরোপের ফুটবল নিয়ামক সংস্থার প্রেসিডেন্ট আলেকজান্দার সেফেরিন বলেছেন, ‘‘অগস্টে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শেষ করা আমাদের লক্ষ্য।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন