বহু জটিলতা এবং নাটতীয়তার মধ্যে দিয়ে ভারতীয় কোচ নির্বাচিত হয়েছেন রবি শাস্ত্রী। কুম্বলে পরবর্তী জমানায় ভারতের ব্যাটন এখন তাঁরই হাতে। কিন্তু শাস্ত্রীর নিয়োগ নিয়ে যে নাটকীয়তা বোর্ড এবং ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটি(সিএসি) দেখিয়েছে তা মেনে নিতে পারছেন না কিংবদবন্তী স্পিনার এরাপল্লি প্রসন্ন।

বৃহস্পতিবার প্রসন্ন বলেন, “শাস্ত্রী যে ভারতের কোচ হওয়ার মূল দাবিদার তা সকলেরই জানা ছিল। কিন্তু যে ভাবে শাস্ত্রীর কোচ হওয়া নিয়ে নাটক করা হল তা কখনওই সমর্থন যোগ্য নয়। প্রথমে নাম প্রকাশ করে পরে আবার তা নাকজ করা, এবং পরে সেই একই নাম কোচ হিসেবে ঘোষণা করা, এটা খুবই নাটকীয়।”

আরও পড়ুন: সৌরভের জার্সি ওড়ানোর ১৫ বছর

অন্য দিকে, সচিন-সৌরভ-লক্ষণের কমিটিরও সামালোচনা করেন এরাপল্লি। তিনি বলেন,“সিএসিতে যারা আছেন তাঁরা প্রত্যেকেই কিংবদন্তী ক্রিকেটার। তাঁদের উচিৎ ছিল আরও কিছুটা সময় নিয়ে কোচ নির্বাচন করার। যত দূর আমি জানি সর্বসম্মত ভাবে এই নাম নেওয়া হয়নি। শেষ মূহূর্তে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “সৌরভদের কমিটি যে কোচিং স্টাফের নাম ঘোষণা করেছে তাঁদের ভূমিকা আরও ভালভাবে বোঝানো উচিৎ ছিল। রবিকে কোচ হিসাবে নিলেও ওঁর কাজ প্রধানত থাকবে টিম ম্যানেজ করা। কোচটা শুধু পোষাকী নাম। আমি ব্যাক্তিগত ভাবে মনে করি ভারতীয় দলে কোচের কোনও দরকার নেই।”

এ দিন সিএসি-এর ভূমিকাতেও বেশ ক্ষুব্ধ দেখাল এই অফ স্পিনারকে। সৌরভদের কমিটির যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলে দেন তিনি। প্রসন্ন বলেন, “দ্রাবিড়ের ভূমিকা আরও ভাল করে বোঝানো উচিৎ ছিল সিএসির। বর্তমানে জাতীয় দলের ব্যাটিং পরামর্শদাতার দায়িত্বে আছে বাঙ্গার। সিএসি যে ভাবে এই কোচ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করল তা বিসিসিআইও করতে পারত। সেখানে সিএসিকে রাখার মানে কী।”