শতবর্ষ পেরিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যের ডুরান্ড কাপ এ বার অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বাংলায়। এ বারই প্রথম রাজ্যে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এই প্রতিযোগিতা। আই লিগ চালু হওয়ার পরে ক্লাবগুলির কাছে ডুরান্ডের কদর কমে গেলেও এ বার তা হচ্ছে ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান-সহ দেশের বেশ কিছু সেরা দলকে নিয়ে। এটিকে এবং আইএসএলের দলগুলি সেরা দল নামাতে না পারলেও ক্লাবেরা অবশ্য পূর্ণ শক্তি নিয়ে নামবে।  

১৮৮৮ সালে প্রথম বার অনুষ্ঠিত হয় ডুরান্ড কাপ। শেষ তিন বছর বন্ধ থাকার পরে এ বছর ১৬টি দল নিয়ে ২ অগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে ডুরান্ত কাপ। ফাইনাল ২৪ অগস্ট। 

১৬টি দলের মধ্যে থাকছে আই লিগের সাতটি দল। আইএসএলের পাঁচটি দল। চারটি দল থাকবে সেনা বাহিনীর। আই লিগের সাত দলের মধ্যে রয়েছে ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান, মহমেডান স্পোর্টিং, চেন্নাই সিটি এফসি, রিয়াল কাশ্মীর, গোকুলম এফসি ও ট্রাউ। আইএসএল থেকে খেলবে চেন্নাইয়িন এফসি, বেঙ্গালুরু এফসি, এটিকে, জামশেদপুর এফসি ও এফসি গোয়া। সশস্ত্র বাহিনীর চার দলের মধ্যে থাকছে আর্মি রেড, আর্মি গ্রিন, বায়ুসেনা ও নৌসেনা দল। 

মোট পাঁচটি মাঠে হবে ডুরান্ড কাপের েখলা। এর মধ্যে রয়েছে ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান, যুবভারতী, কল্যাণী স্টেডিয়াম ও শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে। প্রথম ম্যাচেই  কিবু ভিকুনার মোহনবাগান মুখোমুখি সুব্রত ভট্টাচার্যের মহমেডানের। ২ অগস্ট শুক্রবার যুবভারতী ক্রীড়ঙ্গনে খেলা দুপুর তিনটেয়। শনিবার ইস্টবেঙ্গলের প্রতিপক্ষ আর্মি একাদশ। সোমবার এটিকের ম্যাচ মহমেডান স্পোর্টিংয়ের বিরুদ্ধে। ১৬টি দলকে ভাগ করা হয়েছে চারটি গ্রুপে।  গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন খেলবে সেমিফাইনালে। ২৪ অগস্ট ফাইনাল হবে যুবভারতীতে।  

কিন্তু কেন তিন বছর বন্ধ ছিল ডুরান্ড কাপ? বুধবার ফোর্ট উইলিয়ামের সাংবাদিক বৈঠকে মেজর জেনারেল বসন্ত রেপসওয়াল বলেন, ‘‘ডুরান্ড কাপের ঐতিহ্য আমাদের গর্ব। তাই প্রতিযোগিতাকে আরও বড় ভাবে আয়োজন করার জন্য সময় প্রয়োজন ছিল। সে জন্যই কিছুটা সময় লেগেছে। এ বার আই লিগ ও আইএসএল-এর সেরা দলগুলোকে নিয়ে আয়োজন করছি। যাতে এই প্রতিযোগিতার উত্তেজনা নষ্ট না হয়।’’

আই লিগের দলগুলি প্রথম দল পাঠালেও শোনা যাচ্ছে আইএসএল-এর দলগুলো তাদের প্রথম দল পাঠাচ্ছে না। যদিও মিনার্ভা এফসি-কে আমন্ত্রণ জানানো সত্ত্বেও তারা আসছে না। মেজর জেনারেল বলছিলেন, ‘‘অগস্টের মধ্যে আইএসএলের দলগুলো তাদের সব ফুটবলারকে পাচ্ছে না। তাই ওরা প্রথম দল খেলাতে পারছে না। আই লিগের দলগুলো যদিও সেরা দলই খেলাবে।’’